Alexa তাহিরপুরে লাল শাপলার গালিচা

তাহিরপুরে লাল শাপলার গালিচা

জাহাঙ্গীর আলম ভূঁইয়া, সুনামগঞ্জ ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ০৮:৫৭ ১২ অক্টোবর ২০১৯  

বিলজুড়ে লাল শাপলা

বিলজুড়ে লাল শাপলা

সূর্য মামা যখন গাছের আড়ালে লুকোচুরি খেলা শুরু করে ঠিক তখনই বিকিবিল ছেয়ে যায় শতসহস্র লাল শাপলায়। যেন হাওরের দেশে বিছিয়ে দেয়া হয়েছে লাল গালিচা। প্রথম দেখায় মুখ থেকে অস্ফুটে বেরিয়ে আসবে বিলের গুণগান। মনের অজান্তেই গান ধরতে পারেন ‘তুমি সুতোয় বেঁধেছ শাপলার ফুল, নাকি তোমার মন’।

বিকিবিলের চারপাশে লাল ফুলের সমারোহের সঙ্গে রয়েছে নানা প্রজাতির পাখ-পাখালির কিচিরমিচির সুর। মনে হয় যেন প্রকৃতি তার রূপের সঙ্গে নিজে বাদ্যযন্ত্রে সুরের ঝরনাধারা ছড়িয়ে দিয়েছে। বিলের থেকে দেখা যায় ভারতের মেঘালয় পাহাড়ের অপরূপ সৌন্দর্য ফলে এ বিলটিকে আর্কষণীয় করে তুলেছে। প্রাকৃতিক ভাবেই আকর্ষনীয় লাল শাপলা হাওরে ফুঠে আশপাশের পরিবেশ আর গ্রামগুলোকে মনোমুগ্ধকর করে তুলেছে।

সূযের্র উপস্থিতির পর পরই শাপলা তার আপন সৌন্দর্যকে গুটিয়ে নিয়ে ক্লান্তি নিয়ে ঘুমাতে শুরু করে। সূর্যোদয় থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত লাল শাপলার সৌন্দর্য দৃশ্যমান থাকে। তা দেখতে হলে যেতে হবে সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের উত্তর বড়দল ইউনিয়নের কাশতাল গ্রামের পাশে বিকিবিল হাওরে। শুধু লাল শাপলার উৎস নয় এটি লাল শাপলার গ্রাম। লাল শাপলার বিলে ছুটে আসে স্থানীয় প্রকৃতিপ্রেমীরা। তবে এতটা পরিচিতি পায়নি টাংগুয়ার হাওর, বারেকটিলা, যাদুকাটা, শহীদ সিরাজ লেকের তুলনায়।

জানা যায়, বিকিবিল হাওরের একশ’ কিয়ারের অধিক (৩০শতাংশে এক কিয়ায়) জমি নিয়ে এর অবস্থান। বর্ষার ছয়মাস পানিতে নিমজ্জিত থাকে এ হাওরটি। বাকি সময় এখানে চাষ হয় বোরো জমি। মাত্র কয়েক মাসের জন্য শাপলা ফুল ফুটে এখানে। জেলার মধ্যে সবচেয়ে বেশি শাপলার উপস্থিতি দেখা যায় এ হাওরে। এখানে জন্মে লাল শাপলার পাশাপাশি সাদা ও বেগুনি রঙের শাপলার। তবে এর মধ্যে নয়নাভিরাম মনোমুগ্ধকর লাল শাপলার প্রতি আকর্ষণ সবার চেয়ে বেশি। সাদা ও বেগুনি রঙের শাপলা মূলত লাল শাপলার তুলনায় অপ্রতুল।

লাল শাপলা

সুনামগঞ্জ স্থানীয় সরকার বিভাগ উপ-পরিচালক মোহাম্মদ এমরান হোসেন বলেন, জেলার প্রত্যেকটি পর্যটন স্পটে যাতে পর্যটকরা নির্বিঘ্নে চলাচল করতে পারে সে লক্ষ্যে কাজ করছে জেলা প্রশাসন। এরই সঙ্গে যেখানেই পর্যটন সমৃদ্ধ করার সুযোগ আছে সেখানে আমরা তা নিয়ে জোরালো ভাবে কাজ করবো।

হাওরের পাশের গ্রামের বাসিন্দা সমাজের সেবক মাসুক মিয়াসহ অনেকেই জানান, কোনো ধরনের চাষ ছাড়াই জন্মেছে লাল শাপলাগুলো। পুরো এলাকাজুড়ে এখন লাল শাপলার অপরূপ দৃশ্য দেখা যায়। বর্ষার শুরুতে শাপলা জন্ম হলেও হেমন্তের শিশির ভেজা রোদ মাখা সকালের জলাশয়ে চোখ পড়লে রং-বেরংয়ের শাপলার বাহারি রূপ দেখে চোখ জুড়িয়ে যায়।

যেভাবে যাবেন

বিকিবিলে যেতে হলে প্রথমে আসতে হবে সুনামগঞ্জে। এসে প্রথমে নামবেন আব্দুজ জহুর সেতুর প্রবেশ মুখে। এখান থেকে মোটরসাইকেলে করে সরাসরি তাহিরপুর উপজেলার বাদাঘাট বাজারের পাশেই কাশতাল গ্রাম বিকিবিল অবস্থিত। সুনামগঞ্জ থেকে সময় লাগবে দেড় ঘণ্টা। মোটর সাইকেল ভাড়া জনপ্রতি ১৫০টাকা।

ডেইলি বাংলাদেশ/এনকে