Alexa ‘তাবিজ দিয়ে মেরে ফেলার’ ভয় দেখিয়ে বলাৎকার

‘তাবিজ দিয়ে মেরে ফেলার’ ভয় দেখিয়ে বলাৎকার

নেত্রকোনা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৮:০৫ ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আপডেট: ২১:১৩ ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

নেত্রকোনায় এক ছাত্রকে বলাৎকার করার অভিযোগে কওমি মাদরাসার প্রধান শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার গভীর রাতে ওই মাদরাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

‘তাবিজ দিয়ে মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে’ বলাৎকারের অভিযোগে গ্রেফতার মাওলানা বশীরুল ইসলাম খালিয়াজুরী ইসলামিয়া কওমি হাফিজিয়া মাদরাসার প্রধান শিক্ষক। আট সন্তানের জনক বশীরুল ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার বি-কাঠালিয়া গ্রামের হাফিজ উদ্দিনের ছেলে।

খালিয়াজুরী থানার ওসি এটিএম মাহমুদুল হক জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসায় বলাৎকার করার কথা বশীরুল স্বীকার করেছেন। তার বিরুদ্ধে বলাৎকারের অভিযোগে ছাত্রটির মা বাদী হয়ে থানায় মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

এদিকে, ছাত্রটিকে গত রাতেই উদ্ধার করে খালিয়াজুরী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য তাকে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা হচ্ছে বলে জানান ওসি।

ছবি: সংগৃহীতছাত্রটির মা জানান, গত রোববার ভোর ৪টার দিকে ছাত্রটিকে তাবিজ দিয়ে মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে ওই মাদরাসার টয়লেটের পাশে নিয়ে বলাৎকার করে প্রধান শিক্ষক বশীরুল ইসলাম। সহকারী শিক্ষক মিজানুর রহমান তা দেখে মাদরাসা কমিটিকে জানান। কমিটির সভাপতি গোলাম আবু ইছহাক বিষয়টি পুলিশকে জানালে বশীরুলকে গ্রেফতার করা হয়।

তিনি আরো জানান, প্রায় এক মাস ধরে ভয় দেখিয়ে ছাত্রটির সঙ্গে ওই শিক্ষক এই আচরণ করে আসছেন। ছাত্রটি পরিবারের সবাইকে জানালেও আমরা আগে তা গুরুত্ব দেইনি।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম