Alexa তরুণ ক্রীড়া সাংবাদিক অর্ণব মজুমদার মারা গেছেন

তরুণ ক্রীড়া সাংবাদিক অর্ণব মজুমদার মারা গেছেন

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২২:৩৭ ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯   আপডেট: ২২:৪২ ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯

তরুণ ক্রীড়া সাংবাদিক অর্নব মজুমদার মারা গেছেন। অনলাইন নিউজ পোর্টাল বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমে কাজ করা অর্নব মৃত্যুর আগের দিন পর্যন্ত বিপিএলের ম্যাচ কাভার করেছেন।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের ক্রিকেট করেসপন্ডেন্ট অনিক মিশকাত জানান, শুক্রবার দুপুরে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন অর্নব। পেটে ব্যথা অনুভব করে উত্তরখানে তার বাসার পাশের একটি ফার্মেসিতে ওষুধ কিনতে গিয়ে জ্ঞান হারান তিনি। হাসপাতালে নেয়ার পথে দুপুর ১টা ৪০ মিনিটের দিকে মৃত্যু হয় তার।

চিকিৎসকরা জানান, অর্নব হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। দক্ষিণখানের কেসি হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক খালিদ হোসেন জানান, হাসপাতালে পৌঁছানোর আগেই মৃত্যু হয় তার।

২৭ বছর বয়সী অর্নবের মৃত্যুর খবর এদিন বিপিএলের খেলা চলার সময় মিরপুরের প্রেসবক্সে পৌঁছালে সহকর্মী সাংবাদিকরা শোকে স্তব্ধ হয়ে যান। একই প্রেসবক্সে আগের দিনও কাজ করা সদাহাস্যোজ্জ্বল ও প্রাণবন্ত অর্নব এভাবে মারা যাবেন তা কেউই বিশ্বাস করতে পারছিলেন না। কাজ ফেলেই অনেকে ছুটে যান অর্নবকে দেখতে। দীর্ঘদিনের সহকর্মীরা ভেঙে পড়েন কান্নায়।

অর্নবের মৃত্যুতে গভীর শোক জানিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। এদিন বিপিএলে ঢাকা প্লাটুন ও কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের ম্যাচ চলাকালীন জায়ান্ট স্ক্রিনে অর্নবের মৃত্যুতে শোক বার্তা জানানো হয়।

বিসিবি পরিচালক ও মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস অর্নবের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান। সিনিয়র মিডিয়া ম্যানেজার রাবীদ ইমাম জানান, কাল রাতেও তাকে কাজ সেরে বেরিয়ে যাওয়ার সময় দেখেছি। দারুণ প্রাণবন্ত ছিল অর্নব। কাজের ব্যাপারে ছিল ভীষণ নিবেদিত।

ক্রিকেট নিয়ে বিস্তর জ্ঞান রাখা অর্নব বিডিনিউজের আগে দৈনিক সমকালে ক্রীড়া প্রতিবেদক হিসেবে কাজ করেছেন আড়াই বছর।

ক্রিকেটের পরিসংখ্যান আর ইতিহাস নিয়ে ব্যাপক আগ্রহ ছিল অর্নবের। প্রায়ই মজাদার সব তথ্য বের করে সবাইকে চমকে দিতেন তিনি।

অর্নবের গ্রামের বাড়ি নেত্রকোণায়। পরিবারে আছেন মা ও একমাত্র বোন। চাকরি থেকে অবসর নেয়া অর্নবের মা ঝুনু রানি সরকার থাকেন নেত্রকোনায়। বোন উর্মিলা সুভদ্রা মজুমদার একজন চিকিৎসক। বর্তমানে ভারতেই চেন্নাইয়ে উচ্চতর ডিগ্রি নিচ্ছেন তিনি।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএস/আরএ