ডিজে শাকিলের প্রতারণার ফাঁদ টাঙ্গাইলেও

ডিজে শাকিলের প্রতারণার ফাঁদ টাঙ্গাইলেও

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ০০:২৭ ১৫ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ০০:২৭ ১৫ আগস্ট ২০২০

ডিজে শাকিল

ডিজে শাকিল

বগুড়ায় প্রতারণার ১২শ’ কোটি টাকার চেকসহ মামলায় গ্রেফতারের পর একে একে বেরিয়ে আসছে ডিজে শাকিলের প্রতারণার আরো খবর। টাঙ্গাইলেও প্রতারণার ফাঁদ পেতেছিলেন ডিজে শাকিল। তার কাছে প্রতারিত হয়ে নিঃস্ব হয়েছেন অনেকেই।

টাঙ্গাইলের কালিহাতীর মগড়া এলাকার তাপস কুমার পাল এমনই একজন। ২০১৫ সালে পাঁচ কোটি টাকা ঋণ পাইয়ে দেয়ার কথা বলে স্বাক্ষরসহ সব চেকের পাতা তার কাছ থেকে হাতিয়ে নেন শাকিল। পরে ইচ্ছেমত টাকার অংক বসিয়ে ব্যবহার করেন শাকিল।

প্রতারক ডিজে শাকিলের কাছ থেকে উদ্ধার করা চেকগুলো মূলত রাজলক্ষ্মী ট্রেডিং কর্পোরেশনের মালিক তাপস কুমার পালের। শুধু চেক নয়। প্রভাবশালীদের সঙ্গে ওঠা-বসা থাকার সুবাদে চাকরি দেয়ার কথা বলে তার কাছ থেকে আরো ১৩ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন শাকিল। এসব চেক ও টাকা ফেরতের জন্য সালিস-বৈঠক করেও প্রতিকার পাননি তাপস কুমার পাল।

ডিজে শাকিলের প্রতারণার ফাঁদে পা দিয়ে নিঃস্ব হয়েছেন টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার মগড়া এলাকার ব্যবসায়ী তাপস কুমার পাল

চেকের বিষয়ে পূবালী ব্যাংকের টাঙ্গাইল শাখা থেকে জানানো হয় ২০১৫ সালে হিসাব খোলা হলেও ওই অ্যাকাউন্টে কোনো লেনদেন না করায় তা বন্ধ রয়েছে।

শুধু ঋণ দেয়ার নামে চেক ও চাকরি দেয়ার নামে টাকা হাতিয়ে নিয়েই থেমে থাকেননি ডিজে শাকিল। অনুদান দেয়ার কথা বলে প্রায় দুই হাজার মানুষের কাছ থেকে নিয়েছেন জাতীয় পরিচয়পত্র।

বুধবার রাতে সিরাজগঞ্জের তাড়াশ থেকে ১২শ’ কোটি টাকার চেকসহ প্রতারক ডিজে শাকিলকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এ সময় বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের ভুয়া নথি ও জাল চেক তৈরির সরঞ্জামসহ গ্রেফতার করা হয় তার দুই সহযোগীকে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর