শত আকুতি করেও স্ত্রী-সন্তানকে ডাকাতদের হাত থেকে বাঁচাতে পারলেন না

মঠবাড়িয়ার তিন খুনের রহস্য উদঘাটন

শত আকুতি করেও স্ত্রী-সন্তানকে ডাকাতদের হাত থেকে বাঁচাতে পারলেন না

মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১২:৪৭ ৯ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১২:৫৫ ৯ আগস্ট ২০২০

আয়নাল, খুকুমনি ও তিন বছরের মেয়ে আসফিয়া

আয়নাল, খুকুমনি ও তিন বছরের মেয়ে আসফিয়া

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় একই পরিবারের তিনজন হত্যার রহস্য উদঘাটিত হয়েছে। ঘটনার মূল পরিকল্পনাকারী গ্রেফতার হওয়ার পর, তার স্বীকারোক্তিতে বেরিয়ে আসে চাঞ্চল্যকর তথ্য। 

শনিবার মূল পরিকল্পনাকারী ওলী বিশ্বাস ও তার সহযোগী রাকিব ব্যাপারীকে গ্রেফতারের পর রাতেই মঠবাড়িয়া থানায় সংবাদ সম্মেলন করেন এসপি হায়াতুল ইসলাম খান।

এসপি হায়াতুল ইসলাম খান বলেন, তারা প্রাথমিকভাবে আমাদের কাছে স্বীকার করেছেন। ঘটনায় ব্যবহৃত অস্ত্র ও কিছু জিনিসপত্র উদ্ধার করেছি।

জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানায়, নগদ অর্থ ও স্বর্ণালঙ্কার লুটের আশায় ৩১ জুলাই ধানীসাফা এলাকার অটোচালক আয়নালের ভাড়া বাসায় ওলী ও রাকিবসহ চারজন সিঁদ কেটে ভিতরে ঢুকে। এ সময় তাদের চিনে ফেলায়, আয়নাল, তার স্ত্রী খুকুমনি ও তিন বছরের শিশু আসফিয়াকে হত্যা করে তারা।

তিনি আরো বলেন, আয়নাল খুনী ওলীকে বলেন 'ওলী ভাই, আমাকে মারিস না, তোর যা নেয়ার তুই নিয়ে যা।’ এসময় স্ত্রী ও একমাত্র মেয়েটিকে বাঁচানোর জন্যও আয়নাল অনেক আকুতি করেন। পরে তিনজনকে শ্বাসরোধে হত্যার পর ঘরেই মরদেহ ঝুলিয়ে রাখা হয়।

হত্যাকাণ্ডে অংশ নেয়া বাকি দুইজনকেও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এ ঘটনায় সন্দেহভাজন আরো ছয়জনকে আটক করা হয়েছিলো।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএস