ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রকে বিভক্ত করেছে: কমলা

ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রকে বিভক্ত করেছে: কমলা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৩:১৯ ১৩ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১৪:৫৯ ১৩ আগস্ট ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ডেমোক্র্যাটিক দলীয় প্রেসিডেন্ট প্রার্থী জো বাইডেন রানিং মেট হিসেবে বেছে নেন কমলা হ্যারিসকে। এরপর বুধবার ক্যালিফোর্নিয়ার এক জনসভায় প্রথমবার সশরীরে নির্বাচনী প্রচারণা ইভেন্টে একসঙ্গে উপস্থিত ছিলেন বাইডেন ও কমলা। সেখানে বর্তমান প্রেসিডেন্ট ও নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বী ডোনাল্ড ট্রাম্পের স্বভাব ও কর্মকাণ্ড নিয়ে তীব্র সমালোচনা করেছেন কমলা।

তিনি ট্রাম্পকে একজন অযোগ্য নেতা হিসেবে উল্লেখ করে বলেছেন, ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের লিঙ্গবৈষম্য ও বর্ণবাদকে উসকে দিয়ে নাগরিকদের মধ্যকার ঐক্য নষ্ট করে দেশটিকে বিভক্ত করে ফেলছেন। যুক্তরাষ্ট্রের উন্নয়ন আর ঐক্য ধরে রাখতে তার দলের বিকল্প নেই বলেও জানান তিনি। 

কমলা প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ নারী, যিনি ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিসেবে মনোনীত হলেন। বুধবার নিজের শহর ডেলওয়ারের উইলমিংটনের একটি হাইস্কুল জিমনেসিয়ামে প্রচারণা ইভেন্টে কমলার প্রশংসা করে ৭৭ বছর বয়সী সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট বলেছেন, তিনি একজন স্মার্ট, কঠোর এবং অভিজ্ঞ। এই দেশের জন্য তিনি একজন প্রমাণিত যোদ্ধা। কমলা জানেন কীভাবে সরকার চালাতে হয়, কেমন করে কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে হয়। প্রথম দিন থেকেই দায়িত্ব পালন করতে প্রস্তুত তিনি।

এক বছর আগেও নির্বাচনে মনোনীত হওয়ার দৌঁড়ে বাইডেনের সঙ্গে লড়াই করেছেন কমলা। ৫৫ বছর বয়সী সাবেক আইনজীবী কঠোর সমালোচনা করেছিলেন সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্টের। এবার তাকে সঙ্গে নিয়ে লড়বেন ট্রাম্পকে তার আসন থেকে সরিয়ে দিতে। বাইডেনের পর মঞ্চে উঠে লিঙ্গ সমালোচকদের একহাত নিলেন কমলা, আমার আগে যেসব উচ্চাকাঙ্ক্ষী নারীরা ছিলেন, যাদের আত্মত্যাগ, দৃঢ়তা ও অধ্যাবসায় আজ এখানে আমার উপস্থিতি সম্ভব করেছে।

এরপর ট্রাম্পের ওপর আক্রমণ চালান জ্যামাইকান-ভারতীয় বংশোদ্ভুত এই সিনেটর, আমেরিকার জন্য এটি বাস্তব পরিণতির মুহূর্ত। আমরা আমাদের অর্থনীতি, স্বাস্থ্য, শিশু, যেমন দেশে থাকতে চাই; তার সবকিছু নিয়ে আমাদের ভাবনা আছে।

করোনাভাইরাস নিয়ে বর্তমান প্রেসিডেন্টের নেতৃত্বের সমালোচনা করে কমলা বলেছেন, এই ভাইরাস তার থাবা বসিয়েছে প্রায় প্রত্যেক দেশে। কিন্তু অন্য যে কোনো উন্নত দেশের চেয়ে যুক্তরাষ্ট্র বেশি ক্ষতি করার একটি কারণ আছে। এর কারণ শুরু থেকে একে গুরুত্ব দিতে ট্রাম্পের ব্যর্থতা। টেস্ট করাতে তার অনীহা ছিল। সামাজিক দূরত্ব ও মাস্ক পরা নিয়েও হেলাফেলা করেছেন। তার একটা চরম ভুল ধারণা যে, তিনি বিশেষজ্ঞদের চেয়েও অনেক বেশি জানেন।

সূত্র: বিবিসি, আল জাজিরা

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএএইচ