ট্রফিতে ভারত নিজেদের নাম লিখে রাখলেও সেদিন জয়ী হয় পাকিস্তান

ট্রফিতে ভারত নিজেদের নাম লিখে রাখলেও সেদিন জয়ী হয় পাকিস্তান

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৩:১৫ ১৪ আগস্ট ২০২০  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ মানেই এক অন্যরকম লড়াই, উত্তেজনা। বর্তমানে দুই দেশের লড়াইয়ে অধিকাংশ সময় ভারতই ফেবারিট থাকে। তবে চলতি শতকের শুরুর দিকে দুই দলই ছিল সমানে সমান। সম্প্রতি দেড় দশক আগে দুই দলের এক ম্যাচের অপ্রীতিকর ঘটনা প্রকাশ করেছেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক ইনজামাম উল হক। সেখানে জানা যায়, পাকিস্তানের বিপক্ষে আগেই জয়ী ধরে নিয়ে ট্রফিতে নিজেদের নাম লিখে রেখেছিল ভারত। তবে শেষ পর্যন্ত পাকিস্তানই ম্যাচটি জিতে যায়। 

২০০৪ সালে প্লাটিনাম জুবিলি উদযাপন করে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। এ উপলক্ষে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের বিপক্ষে একটি ম্যাচ আয়োজন করে তারা। ইডেন গার্ডেনসে অনুষ্ঠিত সেই ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে ২৯১ রান করে ভারত। 

সে সময়ের হিসেবে এটা ছিল পাহাড়সম রান। এছাড়া ইডেন গার্ডেনসে এর আগে এত বেশি রান তাড়া করে কেউই জেতেনি। ফলে আয়োজকরা ধরে নেয় তারাই এই ম্যাচ জিততে যাচ্ছে। এই কারণে ট্রফিতে ভারতের নাম খোদাই করে ফেলেছিল তারা।

বল হাতে শুরুতেই পাকিস্তানের উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান ইউনিস খানকে শূন্য রানে ফেরায় ভারত। এতে ম্যাচ জয়ের সম্ভাবনা আরো বৃদ্ধি পায়। কিন্তু সালমান বাট ও শোয়েব মালিকের ব্যাটে ঘুরে দাঁড়ায় পাকিস্তান। 

৫৫ বলে ঝড়ো ৬১ রান করে মালিক আউট হওয়ার পর দলের হাল ধরেন তৎকালীন অধিনায়ক ইনজামাম। তিনি ৭৫ বলে ৭৫ রান করেন। এক প্রান্ত আগলে রেখে কিছুটা ধীর গতিতে ১৩০ বলে ১০৮ রান করেছিলেন সালমান। মাত্র এক ওভার বাকি থাকতে ম্যাচতি জিতে যায় পাকিস্তান।

এই ম্যাচ নিয়ে সম্প্রতি নিজের ইউটিউব চ্যানেলে ইনজামাম বলেন, প্লাটিনাম জুবিলি উদযাপন করতে ভারত তাদের দেশে পাকিস্তানকে একটি ম্যাচ খেলতে আমন্ত্রণ জানিয়েছিল। ম্যাচটি ঘিরে অনেক আয়োজন করা হয়েছিল। সেখানে রাজনীতিবিদরা ছিলেন, আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটারদেরকেও। আমাদের দেশের ইমরান খান, ভারতের সকল সাবেক অধিনায়কেরা ছিলেন। 

তিনি আরো বলেন, ইনিংস বিরতিতে আত্মবিশ্বাসী ভারত ট্রফিতে ওদের নাম খোদাই করে ফেলেছিল। বলা যায় তখনই তারা জয় উদযাপন শুরু করে দিয়েছিল। আগেই বিজয়ী দলের জায়গায় নিজেদের নাম লিখেছিল কারণ তারা তখন দুর্দান্ত দল ছিল এবং জয়ের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী ছিল। এটা অস্বীকার করার উপায় নেই যে ভারত সবসময়ই একটি ভালো দল। 

এরপর ইনজামাম যোগ করেন, কলকাতায় প্রায় ১ লাখ মানুষ ম্যাচটি দেখেছিল। তারা ভারতের সমর্থনে অনেক চিৎকার করছিল। এমনকি আগের দিন অনুশীলনের সময়েও প্রায় ১৫-২০ হাজার মানুষ আমাদের দেখতে মাঠে এসেছিল। তবে এতকিছুর পরও শেষ পর্যন্ত ম্যাচটা আমরা জিতে যাই।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএল