‘টেনে ধরেছিল কোনো রকমে বেঁচেছি’

‘টেনে ধরেছিল কোনো রকমে বেঁচেছি’

নাদিম মাহমুদ, মুন্সিগঞ্জ ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২১:৫৫ ২৯ জুন ২০২০   আপডেট: ২১:৫৭ ২৯ জুন ২০২০

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

রাজধানীর বুড়িগঙ্গা নদীতে অর্ধশত যাত্রী নিয়ে লঞ্চডুবির ঘটনায় কয়েকজন সাঁতরে বেঁচে ফিরেছেন। এর মধ্যে একজন মুন্সিগঞ্জের ওমর চাঁন। তিনি লঞ্চ ডুবে যাওয়ার ঘটনাটি বর্ণনা দিয়েছেন।

ওমর চাঁন বলেন, ময়ূর-২ লঞ্চটি সামনের অংশ দিয়ে মর্নিং বার্ডকে ধাক্কা দেয়। এতে সঙ্গে সঙ্গেই লঞ্চটি উল্টে যাচ্ছিল। এ সময় জীবন বাঁচাতে পানিতে লাফিয়ে পড়ি। সঙ্গে আরো কয়েকজন ছিলেন। কিন্তু অনেকে পানির নিচ থেকে টেনে ধরেছিল কিন্তু কোন রকমে প্রাণে বেঁচেছি। একইসঙ্গে এক নারীকেও উদ্ধার করি।

সোমবার সকাল ৯টায় সদরঘাটের শ্যামবাজার প‌য়ে‌ন্টে ময়ূর-২ নামের লঞ্চের ধাক্কায় মর্নিং বার্ড লঞ্চটি ডুবে যায়। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৩২ জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল ও কোস্ট গার্ড।

বিআইড‌ব্লিউ‌টিএর যুগ্ম প‌রিচালক (বন্দর) একেএম আরিফ উদ্দিন ব‌লেন, সকাল পৌনে ৮টায় অর্ধশতাধিক যাত্রী নিয়ে মুন্সিগঞ্জ থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে আসে মর্নিং বার্ড লঞ্চটি। সদরঘাটে ভেড়ানোর আগ মুহূর্তে চাঁদপুরগামী ময়ূর-২ লঞ্চটি ধাক্কা দিলে সেটি ডুবে যায়। এ সময় লঞ্চে থাকা কয়েকজন যাত্রী সাঁতরে উঠলেও এ পর্যন্ত ৩২ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর