Alexa টাইগারদের যেভাবে নিরাপত্তা দিচ্ছে পাকিস্তান

টাইগারদের যেভাবে নিরাপত্তা দিচ্ছে পাকিস্তান

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৮:১৬ ২৩ জানুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১৯:০১ ২৩ জানুয়ারি ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে বুধবার রাতে পাকিস্তান পৌঁছেছে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। শুক্রবার প্রথম ম্যাচ খেলতে নামবে টাইগাররা। পুরো সফর জুড়েই নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার আয়োজন করেছে পিসিবি। মাহমুদউল্লাহ-তামিমদের দেয়া হচ্ছে ‘প্রেসিডেন্সিয়াল নিরাপত্তা’।

টাইগারদের পাকিস্তান সফরকে কেন্দ্র করে পুরো লাহোরকে নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হয়েছে বলে জানানো হয়েছে। এ প্রসঙ্গে লাহোরের ক্যাপিটাল সিটি পুলিশ কর্মকর্তা জুলফিকার আহমেদ জানিয়েছেন, ‘অস্ত্র সজ্জিত ১০ হাজার পুলিশ দায়িত্বে থাকবে ম্যাচের সময়। হোটেল থেকে যে রাস্তা দিয়ে টাইগাররা স্টেডিয়ামে যাবে ওই রাস্তা সিল করা থাকবে। দল আসা-যাওয়া করার সময় সব রাস্তা বন্ধ থাকবে।’

এছাড়া ম্যাচ ভেন্যুসহ আশেপাশের সব এলাকা আনা হয়েছে সিসিটিভির আওতায়। স্টেডিয়ামের আশেপাশে প্রতিটি ভবনে দক্ষ স্নাইপার সর্বদা নিরাপত্তা বিধানে নিয়োজিত থাকবে। এছাড়া পুরো শহর জুড়েই সার্বক্ষণিক তল্লাশি চলতে থাকবে। বেশ কিছু রাস্তায় চলাচল একবারে বন্ধ করে দিয়েছে পাকিস্তান পুলিশ। ২৭ জানুয়ারির শেষ টি-টোয়েন্টি পর্যন্ত বিশেষ ট্রাফিক ব্যবস্থায় পুরো শহর চলবে বলে জানা গেছে।  

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সফরের সম্ভাব্যতা যাচাই করতে ২০১৯ সালের অক্টোবর মাসে দেশটিতে প্রতিনিধি দল পাঠায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। নিরাপত্তার ব্যাপারে নিশ্চিত হয়ে তারপরই পাকিস্তান যাচ্ছে বাংলাদেশ। প্রতিটি দর্শককে স্টেডিয়ামে প্রবেশ করতে তিন স্তর বিশিষ্ট নিরাপত্তা ব্যবস্থা পার হতে হবে। 

এর আগে দুই দফায় পাকিস্তানে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলেছে শ্রীলংকা। দেশটির ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাচক আসান্থা ডি মেল পূর্ব অভিজ্ঞতা জানিয়ে বলেছেন, ‘ওপরে হেলিকপ্টার, রাস্তাঘাট একেবারেই ফাঁকা ছিল। এমনকি যেসব রাস্তায় গাড়ি যাবে, সেসব রাস্তার আশেপাশে কোনো সাধারণ মানুষকে দেখা যায়নি।’ 

ক্রিকেট শ্রীলংকার অফিশিয়াল ইউটিউব পেজে একটি ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, লংকান জাতীয় দলকে স্টেডিয়াম থেকে হোটেল এবং হোটেল থেকে স্টেডিয়ামে নিতে মোট ৩২টি বড় গাড়ির একটি বহর ব্যবহার করেছে পাকিস্তান। সেই বহরে খেলোয়াড় বহনকারী বাসের মতো দেখতে বেশ কয়েকটি বাস ছিল, যাতে ঠিক কোন বাসে ক্রিকেটাররা রয়েছে তা বোঝা না যায়। বাংলাদেশের জন্যও এমন ব্যবস্থা করা হতে পারে বলে জানা গেছে। 

ডেইলি বাংলাদেশ/এএল