Alexa টাইগারদের নিরাপত্তায় প্রস্তুত পাঞ্জাব

টাইগারদের নিরাপত্তায় প্রস্তুত পাঞ্জাব

ক্রীড়া প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:০১ ১৯ জানুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১৬:১৯ ১৯ জানুয়ারি ২০২০

ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

অনেক জল ঘোলার পর বাংলাদেশের পাকিস্তান সফর নিশ্চিত হয়েছে। মূলত নিরাপত্তা ইস্যুতেই ঝুলেছিল সিরিজটি। আর তাই টাইগারদের সফর উপলক্ষে কঠোর নিরাপত্তার প্রস্তুতি নিচ্ছে পাকিস্তানের পাঞ্জাব অঞ্চল।

শনিবার পাঞ্জাবের আইন মন্ত্রী মুহাম্মদ রাজা বাশারাত টাইগারদের নিরাপত্তা জোরদারের জন্য কর্তৃপক্ষের সঙ্গে এক জরুরী বৈঠক করেন।

আহ্বায়ক রাজা বাসরাত বলেন, ‘নিরাপত্তা পরিকল্পনা কোনোরকম খুঁত রাখা যাবে না। এ জন্য   ইসলামাবাদ পুলিশের সঙ্গে রাওয়ালপিন্ডি পুলিশকে সমন্বয় করে কাজ করতে হবে।’

পাকিস্তানের একটি সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ক মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় বাংলাদেশ দলকে নিরাপত্তা দিতে একটি বিশেষ পরিকল্পনা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। বাংলাদেশ দলের হোটেল এবং মাঠে যাওয়ার পথ-এ নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা থাকবেন তামিম-মাহমুদুল্লাহরা। 

লাহোরে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে বাংলাদেশ দলকে নিরাপত্তা দিতে মোতায়েন করা হবে ১০ হাজার পুলিশ। বড় ধরনের সমস্যা হলে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে তৈরি থাকবেন ১৯ জন বিশেষ কর্মকর্তা, সামরিক কমান্ডো এবং রেঞ্জার্স। 

এছাড়াও স্টেডিয়ামের আশে-পাশের এলাকায় ও বাংলাদেশ দলের হোটেলে থাকবে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা।

এদিকে পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী সরদার উসমার বাজদার বলেন, ‘দর্শকরা খেলা উপভোগ করতে মাঠে আসুক এটাই আমরা চাই। এজন্য যাবতীয় সুযোগ-সুবিধা দেয়া হবে। ’ তবে লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়াম ও রাওয়ালপিন্ডি স্টেডিয়ামের চারপাশে পূর্ণ নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে। মাঠে প্রবেশ ও বেরুনোর সময় কিছু বহন করা যাবে না। খেলোয়াড়রা যেখানে থাকবে সেখানে সার্বক্ষণিক চেকিংয়ের ব্যবস্থাও করছে কর্তৃপক্ষ।

সফরের প্রথম দফায় লাহোরে ২৪, ২৫ ও ২৭ জানুয়ারি পাকিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচ টি-টয়েন্টি সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ। এরপর দ্বিতীয় দফায় রাওয়ালপিন্ডিতে ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে প্রথম টেস্ট খেলবে টাইগাররা। আর তৃতীয় ও শেষ দফায় আবারো পাকিস্তানে গিয়ে ১টি ওয়ানডে এবং দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ। করাচিতে ৩ এপ্রিল ওয়ানডে এবং ৫ এপ্রিল থেকে দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ।

আলোচনায় পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ও আইন মন্ত্রী ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রধান সচিব মমিন আঘা, পুলিশ কমিশনার সাইফ আনজুম এবং অন্যান্য।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএস