Alexa জ্বলে উঠতে ব্যর্থ মুশফিক

জ্বলে উঠতে ব্যর্থ মুশফিক

ক্রীড়া প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২০:৩৮ ৭ নভেম্বর ২০১৯   আপডেট: ২২:০৩ ৭ নভেম্বর ২০১৯

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

ভারতের বিপক্ষে প্রথম কোন পূর্ণাজ্ঞ সিরিজ খেলছে বাংলাদেশ। টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচ জিতে ১-০ তে এগিয়ে টাইগাররা। দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে স্বাগতিক ভারতকে হারাতে পারলেই ইতিহাস গড়বে টাইগাররা। এ ম্যাচে কোন উইকেট না হারিয়েই দলীয় অর্ধশত পার করে বাংলাদেশ। গত ম্যাচে ভালো করলেও এ ম্যাচ জ্বলে উঠতে ব্যর্থ হলে মিস্টার ডিপেন্ডেবল।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ১২.১ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ৯৭ রান।

বৃহস্পতিবার ভারতের গুজরাট রাজ্যের রাজকোটের সৌরাস্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ। ওপেনিংয়ে আসেন লিটন দাস ও নাঈম। গত ম্যাচের পথে হাটতে চায় বাংলাদেশ।  গত ম্যাচে শুরুটা ভালো না হলেও এ ম্যাচ টাইগারদের পক্ষেই। কোন উইকেট না হারিয়েই দলীয় অর্ধশত পার করল বাংলাদেশ।

তবে এক বড় সুযোগ পেলেন লিটন দাস।  ম্যাচের ৬ষ্ঠ ওভারে চাহালের বলে ক্রিজের বাইরে এসে মারতে যান টাইগার ওপেনার। বিধি বাম। বল মিস করলে তা চলে চায় উইকেট রক্ষক পান্টের হাতে। করেন স্টাম্পিং। 

তবে ভাগ্য বিধাতা আজ লিটনকে এর একটি সুযোগ দিলেন।  আউট নিয়ে সন্দেহ হয় থার্ড আম্পায়ারের। তিনি দেখেন পান্ট উইকেটের আগেই বল ধরেন। এতে বেচে যান লিটন। মাঠের আম্পায়ার নো বল ডাকেন।  লিটন দাস ২৫ ও নাঈমের ব্যাটে ৩৬ রানে এগোচ্ছে বাংলাদেশ। তবে এর বেশি দূর আগাতে পারেনি এ জুটি।

সেই চাহালের বলেই পান্টের হাতে রান আউট হয়ে ঘরে ফিরলেন লিটন। লিটন জায়গা পূরণ করেন সৌম্য।  তবে এবার ক্যাচ তুলে ঘরে ফেরেন মোহাম্মদ নাঈম। ৩৬ রানের ইনিংস দলকে উপহার দেন এ ব্যাটসম্যান।

দলের হাল ধরতে আসেন অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহীম।  তবে গত ম্যাচে ভালো করলেও এ ম্যাচ জ্বলে উঠতে ব্যর্থ হলেন মিস্টার ডিপেন্ডেবল।  চাহালের বলে মাত্র ৪ রানে ক্যাচ তুলে দিয়ে ঘরের পথ ধরলেন এ উইকেট কিপার ব্যাটসম্যান।

প্রথম ম্যাচে ৭ উইকেটে ভারতকে হারায় বাংলাদেশ। এর এতেই আত্মবিশ্বাস তুঙ্গে তাই জয়ী একাদশের উপরই ভরসা রাখতে চায় টাইগার টিম ম্যানেজমেন্ট।  এদিকে আগের একদশকে এর একটা সুযোগ দিচ্ছে ভারত। অপরিবর্তিত একাদশ নিয়েই মাঠে নেমেছে দুই দল।

ভারতের মাটি থেকে প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টি সিরিজ জেতার হাতছানি মাহমুদউল্লাহ-মুশফিকদের।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএস/এএল