Alexa জিমে যাওয়ার যে সময় নেই হাতে! তাহলে উপায়!

জিমে যাওয়ার যে সময় নেই হাতে! তাহলে উপায়!

প্রকাশিত: ০৯:৫০ ১ অক্টোবর ২০১৭   আপডেট: ১৬:২০ ৩ অক্টোবর ২০১৭

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

ওজন বাড়ছে, তবু ৩০ মিনিট খরচ করে শরীরচর্চা করা অনেকের পক্ষেই সম্ভব হয় না। তবে চিন্তা নেই! আজ ওজন কমানোর এক অন্য পদ্ধতি সম্পর্কে আলোচনা করব।

 এক্ষেত্রে এমন কতগুলি ফলের বিষয়ে আলোচনা করবো আজ, যা প্রতিদিন খেলে ওজন তো কমবেই, সেই সঙ্গে নানাবিধ জটিল রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কাও হ্রাস পাবে।

ওজন কমাতে সাধারণত যে যে ফলগুলি বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে, সেগুলি হল...

 ১. তরমুজ: প্রতিদিন এই ফলটি মাত্র ১০০ গ্রাম করে খেলে শরীরে পানির অভাব দূর হয়, সেই সঙ্গে তরমুজে উপস্থিত অ্যামাইনো অ্যাসিড শরীরে জমে থাকা অতিরিক্ত ফ্যাট ঝরিয়ে ফেলতেও বিশেষ ভূমিকা নেয়।

২. পেয়ারা: এতে উপস্থিত ফাইবার হজম ক্ষমতার উন্নতিতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। আর একবার হজম ঠিক মতো হতে থাকলে দেহে চর্বি জমার আশঙ্কা অনেকাংশেই হ্রাস পায়। শুধু তাই নয়, ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার খেলে অনেকক্ষণ পেট ভরে থাকে। ফলে বারে বারে খাবার খাওয়ার ইচ্ছা কমে যায়। এই কারণেও ওজন বাড়ার সম্ভাবনা কমতে থাকে। প্রসঙ্গত, পেয়ারায় উপস্থিত ফাইবার কনস্টিপেশনের মতো সমস্যা দূর করতেও দারুনভাবে সাহায্য করে থাকে।

৩. নাশপাতি: ভিটামিন সি এবং ফাইবারে সমৃদ্ধ এই ফলটি প্রতিদিন খেলে ওজন কমতে বাধ্য। কারণ যেমনটা একটু আগেই আলোচনা করা হয়েছে যে ওজন হ্রাসে ফাইবারের বিকল্প কিছু হয় না বললেই চলে। আর ভিটামিন সি এক্ষেত্রে কী ভূমিকা নেয়? বেশ কিছু গবেষণায় দেখা গেছে, শরীরে এই বিশেষ ভিটামিনটির মাত্রা বৃদ্ধি পেলে রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা অনেক শক্তিশালী হয়ে ওঠে। ফলে নানাবিধ সংক্রমণে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা হ্রাস পায়।

৪. কমলা লেবু: দিনে ১০০ গ্রাম কমলা লেবু খেলে শরীরে মাত্র ৪৭ ক্যালরির প্রবেশ ঘটে। সেই সঙ্গে ভিটামিন সি সহ আরও এমন কিছু উপকারি উপাদান দেহের অন্দরে যায়, যাদের প্রভাবে ওজন তো কমেই, সেই সঙ্গে সার্বিকভাবে শরীরও চাঙ্গা হয়ে ওঠে। এক কথায় ওজন কমাতে এবং নানাবিধ রোগ থেকে দূরে থাকতে কমলা লেবুর মতো সাইট্রাস ফলের সঙ্গে বন্ধুত্ব করতেই হবে।

৫. জাম: এতে রয়েছে প্রচুর মাত্রায় অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, যা হজম ক্ষমতার উন্নতি ঘটায়। সেই সঙ্গে রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থাকে শক্তিশালী করে তুলতে, খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে এবং উচ্চ রক্তচাপকে নিয়ন্ত্রণে রাখতেও বিশেষ ভূমিকা নেয়।

৬. লিচু: এই ফলটি খাওয়া মাত্র শরীরে অ্যাডিনোফেকটিন এবং লেপটিন নামে দুটি হরমোনের ক্ষরণ বেড়ে যায়, যা শরীরে জমে থাকা অতিরিক্ত চর্বি ঝরিয়ে ফেলতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে। শুধু তাই নয়, হজম ক্ষমতার উন্নতিতেও এই দুটি হরমোন সাহায্য করে থাকে।

 

৭. পিচ: এই ফলটির শরীরে মজুত রয়েছে প্রায় ৮৯ শতাংশ পানি এবং প্রচুর মাত্রায় ফাইবার। যে কারণে পিচ খাওয়া মাত্র পেটটা ভরে যায়। ফলে অতিরিক্ত খাবার খাওয়ার প্রবণতা কমে যাওয়ার কারণে ওজনও কমতে শুরু করে। সূত্র: বোল্ডস্কাই

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএজে