জামালপুরে বন্যার পানি বৃদ্ধি অব্যাহত 

জামালপুরে বন্যার পানি বৃদ্ধি অব্যাহত 

দেলোয়ার হোসেন, জামালপুর ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৭:৪১ ১৬ জুলাই ২০২০  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

জামালপুরের ৭টি উপজেলায় বন্যার পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত দেওয়ানগঞ্জ বাহাদুরাবাদ ঘাট পয়েন্টে বিপদসীমার ১২৯ এবং সরিষাবাড়ির জগন্নাথগঞ্জ ঘাট পয়েন্টে ৪০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে যমুনার পানি প্রবাহিত হচ্ছে। 

বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড (পউবো)’র জামালপুরের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আবু সাঈদ এবং পানি মাপক গেজ পাঠক আব্দুল মান্নান এটি নিশ্চিত করেছেন।

দেওয়ানগঞ্জ-ইসলামপুর উপজেলার বহু বসতবাড়ি-স্থাপনা-রাস্তাঘাট যমুনায় বিলীন হয়ে গেছে। জেলার দেওয়ানগঞ্জ, ইসলামপুর, মাদারগঞ্জ, মেলান্দহ, সরিষাবাড়ি, বকসিগঞ্জ ও জামালপুর সদর ৭টি উপজেলার ৬৮টি ইউপির মধ্যে প্রায় ৪০টি ইউপির বিস্তীর্ণ এলাকা বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে। প্রায় সাড়ে ৫ লাখ মানুষ পানিবন্দী। 

দেওয়ানগঞ্জ ইউএনও সুলতানা রাজিয়া বলেন, এই উপজেলায় দেড় লাখ মানুষ পানিবন্দী। পাঁচটি বন্যা আশ্রয় কেন্দ্রে উপজেলার পাঁচ শতাধিক পরিবার আশ্রয় নিয়েছে। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে ৩৭ মেট্রিক টন চাল, নগদ আড়াই লাখ টাকা ও এক হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়া ৫৭ হাজার পরিবারের মাঝে ভিজিএফ এর চাল বিতরণের কার্যক্রম চলছে। এ উপজেলায় গো খাদ্যের জন্য ৫০ হাজার ও শিশু খাদ্যের জন্য ৫০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

ইসলামপুর ইউএনও মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, এ উপজেলায় এক লাখ ২০ হাজার মানুষ পানিবন্দী। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ছয় হাজার ১৬০ জন মানুষ ৪৬টি আশ্রয় কেন্দ্রে অবস্থান করছেন। তিনি বলেন, এরইমধ্যে বন্যা দুর্গতদের মাঝে ১৯ মেট্রিক টন চাল ও দুই হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার বিতরণ করা হয়েছে।

বন্যা কবলিত এলাকাগুলোর মধ্যে দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা চুকাইবাড়ী, চিকাজানী, বাহাদুনাবাদ, চর আমখাওয়া ইউপি, ইসলামপুর উপজেলার পার্থশী কুলকান্দি, বেলগাছা, চিনাডুলী, নোয়ারপাড়া, ইসলামপুর সদর, পলবান্দা, ইসলামপুর পৌরসভা, গোয়ালের চর,গাইবান্দা, চরগোয়ালীনী ও চরপুটিমারী ইউপি। মেলান্দহ উপজেলার, মাহমুদপুর, শ্যামপুর, মেলান্দহ পৌরসভা, নাংলা, আদ্রা, ফুলকোচা, ঝাউগড়া, ও ঘোষেরপাড়া ইউপি। মাদারগঞ্জ উপজেলার গুনারীতলা জোড়খালী, বালিজুড়ি ও চর পাকেরদহ ইউপি। সরিষাবাড়ী উপজেলার পিংনা, আওনা, পোগলদিঘা, সাতপোয়া ও কামরাবাদ ইউপি। বকশিগঞ্জ উপজেলার সাদুরপাড়া, মেরুরচর, বগারচর ইউপি। জামালপুর সদর উপজেলার লক্ষীরচর, তুলশিরচর ইউপি বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে। ইসলামপুর চিনাডুলি ইউপিতে ৩৫০ প্যাকেট ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করেন এমপি ফরিদুল হক খান দুলাল। 

মেলান্দহ ইউএনও তামিম আল ইয়ামীন জানান, বন্যা মোকাবিলায় এখনো ১৪ মে. টন ত্রাণ মজুদ আছে। পিআইও অফিস সূত্র জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার থেকে দুর্গতদের মাঝে ত্রাণ বিতরণের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। সরিষাবাড়ীর উপজেলার ৮টি ইউপির মধ্যে ৫টি ইউপির চরাঞ্চলের অন্তত অর্ধশতাধিক গ্রামের মানুষ পানিবন্দী। 

বন্যা পরিস্থিতি অবনতি হওয়ায় উপজেলার পিংনা, আওনা, সাতপোয়া ও পোগলদিঘা ইউপির চরাঞ্চলের মানুষ যাতায়াত এবং গরু, ছাগল, হাঁস-মুরগী নিয়ে চরম বিপাকে পড়েছেন।

বকশীগঞ্জের সাধুরপাড়া ইউপির মদনের চর, বিলেরপাড়, ডেরুরবিল, ঠান্ডার বন্দ, চর গাজীরপাড়া, উত্তর আচ্চাকান্দি, কতুবের চর, বাংগাল পাড়া, নয়াবাড়ি, চর কামালের বার্ত্তী, চর আইরমারী গ্রাম, মেরুরচর ইউপির মাইছানিরচর, ভাটি কলকিহারা, উজান কলকিহারা, পূর্ব কলকিহারা, চিনারচর, বাঘাডুবি, খেওয়ারচর, ঘুঘরাকান্দি ও ফকিরপাড়া, বগারচর ইউপির আলীরপাড়া, টালিয়াপাড়া, বালুরচর, পেরিরচর, গোপালপুর, বগারচরসহ ৪০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। রাস্তাঘাট, ফসল, বীজতলা তলিয়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছে সাধারণ মানুষ। বিশেষ করে গো-খাদ্য ও বিশুদ্ধ পানির সংকট দেখা দিয়েছে।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) হাসান মাহবুব খান জানান, বন্যার বিষয়টি আমাদের পর্যবেক্ষণে রয়েছে। বিভিন্ন বিদ্যালয় আশ্রয় কেন্দ্র হিসেবে প্রস্তুত করা হচ্ছে।

কৃষি সম্প্রসারণের উপ-পরিচালক মো. আমিনুল ইসলাম জানান, বন্যার পানিতে ৭৩৯ হেক্টর জমির আমন বীজতলা, ১৬ হাজার ৬৬ হেক্টর জমির আউশ ধান এবং ২১ হাজার ২৭ হেক্টর জমির পাট তলিয়ে গেছে।

এদিকে ইসলামপুর উপজেলায় বন্যা মোকাবিলায় একটি কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। জরুরি তথ্যের জন্য- ০১৭২৩৫৯১২৬৩ মামুনুর রশীদ, উপ-সহকারী প্রকৌশলী, ইসলামপুর ০১৭১০৪১৩১২২ পিআইও, ইসলামপুর। নৌকার প্রয়োজনে- ০১৭৪৬২২৯৫ মজনু মিয়া, ০১৭৭৭৭৭৩৭৮৫, সুশান্ত বাবু, জরুরি উদ্ধার কাজের জন্য- ০১৭৩৮৬০৪০১০ মো. খাইরুল, ইসলামপুর ফায়ার সার্ভিস এবং জরুরি মেডিকেল টিমের জন্য ইউএনও মিজানুর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করার জন্য আহ্বান জানানো হয়েছে। এছাড়া ইসলামপুর উপজেলার বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে ডিসি মোহাম্মদ এনামুল হক, এমপি ফরিদুল হক খান দুলাল ও জনপ্রতিনিধিদের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।  

ডেইলি বাংলাদেশ/এমএইচ