জনগণের পাশে নেই নাটোর বিএনপি

জনগণের পাশে নেই নাটোর বিএনপি

নাটোর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৩:৪১ ১০ জুলাই ২০২০   আপডেট: ১৬:০৯ ১০ জুলাই ২০২০

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

করোনা পরিস্থিতিতে দেশের দুস্থ ও অসহায়রা যেন না খেয়ে থাকে সে ব্যাপারে নানা পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার। সরকারের পাশাপাশি ত্রাণসামগ্রী নিয়ে মানুষের দ্বারে দ্বারে ছুটছেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরাও। কিন্তু করোনার এমন সময় পাশে নেই বিএনপি নেতারা। একই অবস্থা নাটোরের বিএনপি নেতাকর্মীদের। 

দেশে এই সংকটের চার মাসে তথাকথিত এসব নেতাকর্মীরা যেন কোয়ারেন্টাইনে চলে গেছেন। অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানো তো দূরের কথা, তাদের নিজেদেরই কোনো খোঁজ-খবর নেই। হঠাৎ করেই যেন তারা উধাও হয়ে গেছেন। নাটোরের ছাত্রদল, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল এবং জেলা বিএনপিসহ প্রত্যেকটি অঙ্গসংগঠনই আজ নিষ্ক্রিয়। 

নাটোরের সিংড়া উপজেলা বিএনপির প্রবীণ নেতা ও সাবেক কলম ইউপি চেয়ারম্যান ইব্রাহীম খলিল ফটিক বলেন, উপজেলা বিএনপিতে গ্রুপিংয়ের ছড়াছড়ি। দীর্ঘদিন ধরে এসব গ্রুপিং থাকায় দলীয় শক্তি নষ্ট হচ্ছে। এসব গ্রুপিংয়ের জন্য করোনা পরিস্থিতিতেও আমরা জনগণের পাশে থাকতে পারছি না।

করোনার দুর্যোগে জনগণের পাশে নেই কেনো এমন প্রশ্নের জবাবে জেলার বিএনপি নেতা আমজাদ হোসেন বলেন, যতটুকু থাকার কথা ততটুকু থাকা সম্ভব হয়নি। এর পেছনে নানা প্রতিবন্ধকতাও রয়েছে। এছাড়া দুর্যোগের ভেতর রাজনৈতিক কর্মসূচি পালন করা ঠিক নয়।

নিজ দলের অনেকের দায়িত্বহীনতা সম্পর্কে প্রবীণ এ নেতা বলেন, দেখবেন সিংড়াসহ বিভিন্ন উপজেলার বেশিরভাগ নেতাই নির্বাচনের পর অদৃশ্য হয়ে গেছেন। যারা জনপ্রতিনিধি হতে চেয়েছিলেন তাদেরও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। এমনকি কেউ এলাকার খোঁজ-খবরও নেন না।

নলডাঙ্গা উপজেলা বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক জিল্লুর রহমান বলেন, করোনা প্রাদুর্ভাবে স্বাভাবিকভাবেই কর্মসূচি কিছুটা ব্যাহত হচ্ছে। করোনা দুর্যোগে বিএনপি যতটুকু জনতার পাশে আছে তার চেয়ে বেশি থাকা সম্ভব হতো দলীয় কমিটিগুলো থাকলে। কমিটি না থাকায় জনতার পাশে থাকার জন্য সাংগঠনিক নির্দেশ ব্যাহত হচ্ছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ/আরআর