ছেলের মৃত্যুর খবরে মারা গেলেন মা

বগুড়া প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৭:২৩ ১১ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ১৭:২৩ ১১ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

 

বগুড়ার একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মাকে দেখে ফেরার পথে খুন হয়েছেন গাইবান্ধার এক ব্যবসায়ী। সে ছেলের মৃত্যুর খবরে মারা গেছেন চিকিৎসাধীন মা।

বৃহস্পতিবার রাতে কাহালু থানা পুলিশ সৈয়দ আপেল মাহমুদ নামে ওই ব্যবসায়ীর মরদেহ উদ্ধার করেন।

আপেল গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার ফাঁসিতলা মোঘলটুলি এলাকার সৈয়দ আব্দুল ওহাব দীপ্তির ছেলে। তিনি ‘ইনডেক্স বিজসেন কো-অপারেটিভ সোসাইটি’ নামে একটি অর্থিক লেনদেন প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ছিলেন।

আপেলের চাচা সৈয়দ আশরাফুল আলম মানিক বলেন, তার মা আয়েশা বেগম ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে বগুড়ার টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। বৃহস্পতিবার বিকেলে আপেল তার মাকে দেখতে ওই হাসপাতালে যান। সন্ধ্যায় বাড়ি ফেরার জন্য হাসপাতাল থেকে বের হন তিনি। এরপর থেকে আপেলের মোবাইল বন্ধ পাওয়া যাচ্ছিল। পরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানতে পারেন কাহালুতে এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সেখানে গিয়ে পরিবারের লোকজন মরদেহটি আপেলের বলে সনাক্ত করেন। এ খবর জেনে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তার মা আয়েশা বেগম শুক্রবার দুপুরে মারা যান। 

আপেলের ভগ্নিপতি একরামুল হক বলেন, আপেল ছিলেন পরিবারে সবচেয়ে ভালো মানুষ। তার কোন শত্রু ছিল বলে কেউ বলতে পারবে না। তাকে কেন খুন করা হলো বিষয়টি বুঝতে পারছি না। এ ঘটনায় জড়িতদের চিহ্নিত করে বিচার দাবি করেন।

কাহালু থানার ওসি শওকত কবির বলেন, বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার বারমাইল-নামুজা সড়কে ছাতারপুকুর এলাকা থেকে আপেলে মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। সম্ভবত দুর্বৃত্তরা গলায় ফাঁস দিয়ে হত্যার পর কাহালু থানা এলাকায় ফেলে গেছে মরদেহের পাশে কয়েকটি চাবি, নগদ টাকা এবং কলম পড়ে ছিল। হত্যার কারণ তাৎক্ষনিকভাবে জানা সম্ভব হয়নি। পরে ময়নাতদন্তের জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। নিহতের পরিবার এ বিষয়ে মামলা করলে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম