Alexa ছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা, জানা গেল প্রধান শিক্ষিকার স্বামীর অপকর্ম

ছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা, জানা গেল প্রধান শিক্ষিকার স্বামীর অপকর্ম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২১:৪৯ ৮ ডিসেম্বর ২০১৯  

ছবি: প্রতীকী

ছবি: প্রতীকী

সপ্তম শ্রেণির আদিবাসী এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষিকার স্বামীকে শনিবার গ্রেফতার করা হয়েছে।

অভিযোগ, গত কয়েক মাস ধরে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়েছে। নির্যাতিতা অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে, প্রধান শিক্ষিকার স্বামীর এই অপকর্মের কথা প্রকাশ্যে আসে।

ভারতের ওড়িশা কোরাপুটে ঘটেছে এ ঘটনা। পুলিশ জানায়, নিগৃহীতা কোরাপুটের এক আবাসিক সরকারি স্কুলের ক্লাস সেভেনের ছাত্রী।

সাব-ডিভিশনাল পুলিশ অফিসার বরুণ গুণটুপল্লি জানিয়েছেন, ধর্ষণে অভিযুক্ত বছর ষাটেকের ওই ব্যক্তি স্ত্রীর সঙ্গে আবাসিক স্কুলের স্টাফ কোয়ার্টারে থাকতেন। স্ত্রীর অনুপস্থিতিতে ওই নাবালিকাকে একাধিকবার কোয়ার্টারের মধ্যে সে ধর্ষণ করে। যার জেরে কিশোরী তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে।

তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে, কিশোরীর পরিবারের অনুমতি নিয়েই গরমের ছুটিতে তাকে কোয়ার্টারে রেখেছিল সে। স্ত্রী বাড়িতে না-থাকলে, সে ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করতেন। স্বামীর এই গুণকীর্তির কথা জানা ছিল না প্রধান শিক্ষিকার। মেয়েটি গর্ভবতী হওয়ার পরেই তিনি সমস্তটা জানতে পারেন।

পুলিশের দাবি, অভিযুক্ত নিজের দোষ স্বীকার করেছে। আইপিসি, পকসো ছাড়াও তফশিলি জাতি ও তফশিলি উপজাতি সুরক্ষা আইনে তার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমএইচ