ছাত্রীদের ছবি নিয়ে ব্ল্যাকমেইল, অতঃপর অসামাজিক কাজের প্রস্তাব!

ছাত্রীদের ছবি নিয়ে ব্ল্যাকমেইল, অতঃপর অসামাজিক কাজের প্রস্তাব!

দিনাজপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২২:৪৫ ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০   আপডেট: ২২:৫০ ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ব্ল্যাকমেইল (প্রতীকী ছবি)

ব্ল্যাকমেইল (প্রতীকী ছবি)

দিনাজপুর টেক্সটাইল ইন্সটিটিউট কলেজের চতুর্থ সেমিস্টরের এক ছাত্রীর অশালীন ছবি ইন্টানেটে ছেড়ে দেয়ার হুমকি দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার ওই ছাত্রী কলেজের অধ্যক্ষ বরাবরে এমন অভিযোগ দায়ের করেছে।

চতুর্থ সেমিস্টারের ছাত্র নাজমুল ইসলাম লিমন দিনাজপুর ঈদগাও বস্তি ও দিনাজপুর ডিএসবি’র কনস্টেবল শহিদুল ইসলামের ছেলে। রকিব হোসেন দিনাজপুর জেলার বিরামপুর উপজেলার রতনপুর গ্রামের বকুল হোসেনের ছেলে। 

ভুক্তভোগী ওই ছাত্রী জানান, গত শনিবার ও রোববার দুইদিন ধরে টেক্সটাইল ইন্সটিটিউট ছাত্র রকিব হোসেন, নাজমুল ইসলাম লিমনসহ আরো কয়েকজন আমার ফেসবুক আইডি থেকে ছবি নিয়ে সেগুলো বিকৃত করে। পরে সেসব অশালীনভাবে ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়া হবে বলে ব্ল্যাকমেইল করেন। বিষয়টি কলেজের কয়েকজন শিক্ষককে জানালে তারা উল্টো আমার থেকে সাদা কাগজে স্বাক্ষর নেন। 

ওই ছাত্রী আরো জানান, রকিব, লিমনসহ কয়েকজন ছাত্র দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন ছাত্রীর ছবি নিয়ে ব্ল্যাকমেইল করে অসামাজিক কাজের প্রস্তাব দেয়।

চতুর্থ সেমিস্টারের ছাত্র নাজমুল ইসলাম লিমন ও রকিব হাসান (ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ)অভিযুক্ত ছাত্র রকিব ও লিমন জানান, ফেসবুকে ওই বান্ধবীসহ অনেকের সঙ্গেই নিয়মিত কথা হয়। তবে ওই বান্ধবীর অশালীন ছবি পোস্ট করবো এমন হুমকি প্রদান দেয়নি। সেই ছাত্রী আমাদের ভালো বন্ধু।  

দিনাজপুর টেক্সটাইল কলেজের অধ্যক্ষ স্বপন কুমার রায় জানান, এই কলেজে আমি অল্প কয়েকদিন আগে এসেছি। চতুর্থ সেমিস্টারের ছাত্রীর সঙ্গে যা হয়েছে সে সম্বন্ধে আমার কিছু জানা নেই। যেহেতু ওই ছাত্রী অভিযোগ প্রদান করেছেন। সেহুতো তদন্ত সাপেক্ষে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম