গ্রেফতার এড়াতে নদীতে ঝাঁপ দিয়ে লাশ হলেন আসামি

গ্রেফতার এড়াতে নদীতে ঝাঁপ দিয়ে লাশ হলেন আসামি

বগুড়া প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৯:৩২ ৩ আগস্ট ২০২০  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

বগুড়ার শিবগঞ্জে গ্রেফতার এড়াতে নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়ে লাশ হলেন একাধিক মামলার আসামি মোস্তাফিজুর রহমান মাসুম। উপজেলার মহাস্থান নামাপাড়া এলাকায় করতোয়া নদীতে ঝাঁপ দেয়ার প্রায় সাত ঘণ্টা পর সোমবার দুপুরে তার লাশ ভেসে ওঠে।

নিহত মাসুম স্থানীয় রায়নগর ইউপির সাবেক সদস্য বজলুর রশীদের ছেলে। 

মাসুমের এমন মৃত্যুর জন্য পুলিশকে দায়ী করেছেন তার স্বজন ও পরিবারের সদস্যরা। তারা ওই অভিযানে যুক্ত সদস্যদের বিচারের দাবিতে মাসুমের লাশ নিয়ে সোমবার দুপুর দেড়টার দিকে মহাস্থান এলাকায় বগুড়া-ঢাকা মহাসড়ক অবরোধ করে। এতে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। অবশ্য পরে পুলিশি হস্তক্ষেপে প্রায় ৩০ মিনিট অবস্থান শেষে অবরোধকারীরা মহাসড়ক ছেড়ে গেলে যান চলাচল আবার শুরু হয়।

শিবগঞ্জ থানার ওসি এস এম বদিউজ্জামান জানান, মাদক ব্যবসার সঙ্গে জড়িতদের ধরতে এএসআই কুদ্দুস তিনজন ফোর্স নিয়ে রোববার সন্ধ্যা সোয়া ৬টার দিকে মহাস্থান নামাপাড়া এলাকায় যায়। একপর্যায়ে তারা নয়ন নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে ধরতে সক্ষম হলেও গ্রেফতার এড়াতে মোস্তাফিজুর রহমান মাসুম দৌড় শুরু করে। তখন পুলিশও তার পিছু নেয়। এরপর মাসুম করতোয়া নদীতে ঝাঁপ দেয়। পরে তাকে উদ্ধারের জন্য ফায়ার সার্ভিসের সদস্যদের ডাকা হয়। তারা নদীতে নেমে খোঁজাখুঁজি শুরু করে। কিন্তু রাতের অন্ধকার নেমে আসায় উদ্ধার অভিযান স্থগিত রাখা হয়। তবে সোমবার দুপুর দেড়টার দিকে ঝাঁপ দেয়ার স্থান থেকে প্রায় ৫০০ মিটার দূরে বড়বাড়ি এলাকায় তার লাশ ভেসে থাকতে দেখা যায়।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য তোফাজ্জ্বল হোসেন তোফা জানান, মাসুমের মৃত্যুর জন্য তার স্বজনেরা মাদক বিরোধী অভিযানে যুক্ত পুলিশ সদস্যদের দায়ী করেছে। তাদের বিচারের দাবিতে মাসুমের স্বজনেরা তার লাশ নিয়ে দিকে বগুড়া-ঢাকা মহাসড়ক অবরোধ করে। এতে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পরে পুলিশ অবরোধকারীদের বুঝিয়ে তাদের মহাসড়ক থেকে সরিয়ে দেয়। এতে ৩০ মিনিট পর দুপুর ২টার দিকে যান চলাচল আবারো শুরু হয়। মাসুম সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সে মাদক সেবী ছিল।

ওসি আরো জানান, মাসুম মাদক ব্যবসায়ী ছিল। তার বিরুদ্ধে এ সংক্রান্ত সাতটি মামলা রয়েছে। একটি মামলায় তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা ছিল। ময়নাতদন্তের জন্য মাসুমের লাশ বগুড়া শহিদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ