গ্রামবাসীর হাত থেকে কোবরার প্রাণ বাঁচালেন যুবক

গ্রামবাসীর হাত থেকে কোবরার প্রাণ বাঁচালেন যুবক

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৭:৩০ ১৪ আগস্ট ২০২০  

কোবরা সাপ উদ্ধার করা হচ্ছে। ছবি: সংগৃহীত।

কোবরা সাপ উদ্ধার করা হচ্ছে। ছবি: সংগৃহীত।

রাবার বাগান থেকে নেমে সড়কে আসে একটি কোবরা সাপ। আর সাপটিকে মারতে হাতে লাঠিসোটা নিয়ে প্রস্তুত হয় গ্রামবাসী। কিন্তু সাপটিকে মারতে বাধা দেন স্থানীয় যুবক সাজ্জাদুর হোসেন। দ্রুত জাতীয় জরুরি সেবার ৯৯৯ নম্বরে কল দেন তিনি। এতে সাপটিকে উদ্ধার করে বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশন।

শুক্রবার সকালে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের পূর্ব ভাগলপুর গ্রাম থেকে সাপটিকে উদ্ধার করা হয়।

স্থানীয়রা জানায়, একটি সাপ মাইজদীহি পাহাড়ের রাবার বাগান থেকে নেমে পূর্ব ভাগলপুর গ্রামের সড়কে চলে আসে। সড়কে সাপ দেখে হুলুস্থুল কাণ্ড শুরু করেন গ্রামবাসী। সাপটিকে মারতে লাঠিসোটা নিয়ে প্রস্তুত হন তারা। ঠিক তখন সাপটিকে মারতে গ্রামবাসীকে বাধা দেন স্থানীয় যুবক সাজ্জাদুর হোসেন। তিনি সঙ্গে সঙ্গে জাতীয় জরুরি সেবার ৯৯৯ নম্বরে কল দিয়ে সাপটিকে উদ্ধার করতে অনুরোধ জানান। সেই কল পেয়ে সাপটি উদ্ধার করে বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনে রাখা হয়। 

বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের পরিচালক সজল দেব জানান, শুক্রবার সকাল ৮টায় ৯৯৯ থেকে তাদের মোবাইলে কল করা হয়। ওই কলে বিপদে পড়া সাপটিকে উদ্ধার করতে বলা হয়। তখন ভাগলপুর গিয়ে সাপটি উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরো জানান, উদ্ধার করা সাপের গায়ের রং ও স্বভাব লক্ষ্য করা হয়েছে। এটিকে ভয়ানক কোবরা সাপ মনে হচ্ছে। কোববা সাপের মধ্যেও বিভিন্ন জাত রয়েছে। তাই সেটি কোন জাতের কোবরা তা বলা যাচ্ছে না। মানুষের ধাওয়া খেয়ে সাপটি এখন দুর্বল হয়ে পড়েছে। সুস্থ হলেই সাপটিকে লাউয়াছড়া বনে অবমুক্ত করা হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ