গোপালগঞ্জে চিকিৎসক-রোগীসহ ক্লিনিক লকডাউন

গোপালগঞ্জে চিকিৎসক-রোগীসহ ক্লিনিক লকডাউন

গোপালগঞ্জ প্র‌তিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২০:৩১ ২২ মে ২০২০   আপডেট: ২০:৩৮ ২২ মে ২০২০

নিরাময় নার্সিং হোম অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার

নিরাময় নার্সিং হোম অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে একটি প্রাইভেট ক্লিনিকের একজন চিকিৎসকের করোনা পজিটিভ হওয়ায় ওই চিকিৎসক, স্টাফ ও রোগীসহ ক্লিনিকটি লকডাউন করা হয়েছে।

কাশিয়ানীর ইউএনও মো. সাব্বির আহমেদ এই লকডাউন ঘোষণা করেন। শুক্রবার দুপুরে কাশিয়ানী উপজেলা সদরের নিরাময় নার্সিং হোম অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে এ ঘটনা ঘটে।

ওই ক্লিনিকের মালিক ডা. আসলামুজ্জামান (কামাল) করোনা পরীক্ষার জন্য গত মঙ্গলবার নমুনা দেন। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে তার করোনা পজিটিভ আসে। পরীক্ষার জন্য নমুনা দেয়ার পরও ডা. আসলামুজ্জামান এক রোগীর সিজারিয়ান অপারেশন করেন। পরে স্বাস্থ্য বিভাগের পরামর্শ অনুযায়ী ক্লিনিকে অবস্থানরত রোগী, নবজাতক ও রোগীর আত্মীয় স্বজন, ওই ডাক্তার এবং ১১স্টাফসহ ক্লিনিকটিকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।

লকডাউনে সবার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে। এ সময় কাশিয়ানী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. কাইয়ুম তালুকদার উপস্থিত ছিলেন।

এ দিকে গত ২৪ ঘণ্টায় গোপালগঞ্জে নতুন করে চারজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে কাশিয়ানীতে এক ডাক্তারসহ তিনজন এবং মুকসুদপুরে একজন।

এই নিয়ে জেলায় ১১৮ জন করোনায় আক্রান্ত হলেন। আক্রান্তদের মধ্যে ৪৯ জন সুস্থ হয়েছেন। বাকী ৬৭ জন জেলার বিভিন্ন হাসপাতালে ও নিজ নিজ বাড়িতে চিকিৎসা নিচ্ছেন। একজন ঢাকায় চিকিৎসাধীন।

গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে একজনের মৃত্যু হয়েছে।

জেলা সিভিল সার্জন ডা. নিয়াজ মোহাম্মদ জানান, এ পর্যন্ত জেলায় ২ হাজার ৪৫০ জনের শরীর থেকে করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এর মধ্যে ২ হাজার ৩৫০ জনের ফলাফল এসেছে। বাকী ১০০ জনের ফলাফল আজ রাতে অথবা আগামীকাল সকালে পাওয়া যাবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে