Alexa গান না গাইলে হয়তো হারিয়েই যেতাম: অঞ্জন দত্ত

গান না গাইলে হয়তো হারিয়েই যেতাম: অঞ্জন দত্ত

নুরুল করিম ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ০৯:৪৮ ১৮ জুলাই ২০১৯  

অঞ্জন দত্ত। ছবি : এবেলা

অঞ্জন দত্ত। ছবি : এবেলা

অঞ্জন দত্ত—নামটার মধ্যে এক অদ্ভুত ব্যাপার আছে! যেমন, তিনি গান করতে এলেন ৪০ বছর বয়সে। তাও আবার গাওয়া শুরু করলেন খাতার ভেতর রেখে দেয়া লাল গোলাপ ফুলের চ্যাপ্টা হয়ে যাওয়ার গল্প। কখনো কখনো গানের কথায় বলেছেন স্কুলের গেটের বাইরে দাঁড়িয়ে থাকা মেয়েটার জন্য দৌড়ে দৌড়ে আসা হাঁপানো কিশোর ছেলেটার আলাপ। বেলা বোস, মালা, দেবলিনা, রঞ্জনা, জয়ীতা সম্পর্কে জানানোর মানুষটি ডেইলি বাংলাদেশ-এর মুখোমুখি হয়েছিলেন সম্প্রতি। কথা বলেছেন নিজের লাইফস্টাইল, অভিনয় নিয়েও।

কেমন আছেন?

ভালো। বাংলাদেশ তো ভালো থাকার জায়গা!

আপনাকে কখনো কালো চশমা ছাড়া দেখিনি। এর কারণ...

এমনিই পরেছি। ভালো লাগে। চশমা বাদ দিয়ে যদি জিনস কিংবা জ্যাকেটের কথা বলো, এগুলোও কোনো কিছু না ভেবেই পরা হচ্ছে। তবে কেন পরি, সেটা আমি নিজেই নিজে প্রশ্ন করলাম! মন বললো আমার ভাল লাগে এগুলো পরতে। তাই আর নিজেকে বদলাইনি!

বয়স হচ্ছে। সেটা নিয়ে মনে কোনো ভয় হয়?

হয় তো! তবে স্বস্তিতে থাকতে পারি। বিশ্বাস করো, আমি যাদের নিয়ে চলি বা আশেপাশের সবাই আমাকে তাদের বয়সিই ভাবে। খুব ক্যাজুয়ালি কথা বলে। এই যে আজকেও দুটা মেয়ে আমাকে জড়িয়ে ধরল। আমি মেয়েটির কাকার বয়সি, অন্য কাউকে হলে হয়তো প্রণাম করতো। কমবয়সিরা আমাকে তাদের মতো মনে করলে সবচেয়ে বেশি খুশি হই। তখন ভাবি, আরে বয়স বাড়ছে কই!

ঢাকার মঞ্চে অঞ্জন দত্ত

এই যে আপনার এত জনপ্রিয়তা, বেশিরভাগই আপনার গানের জন্য। সেটা কি আপনি মানেন?

আমি জানি, গানই আমার পরিচয়। গান গেয়ে মানুষের সবচেয়ে বেশি কাছে এসেছি, ভালোবাসা পেয়েছি। গান না গাইলে হয়তো হারিয়েই যেতাম। তুমিও ইন্টারভিউটা নিতে না।

অভিনয়ের আক্ষেপটা কি এখনো আছে?

আমার সারাজীবনের আক্ষেপ। এই কথা আমি সবসময়ই বলি। প্রতিটা ইন্টারভিউতে বলতে হয়! জীবনে যা হতে চেয়েছি, তা হতে পারিনি। সত্যি এ জীবনে আমি ভালো অভিনেতা হতে চেয়েছি। আশির দশকে অভিনয় করতে আসার সময় মাত্র দু-চারজন পরিচালক আমাকে দিয়ে ছবি করিয়েছিলেন। বড় অভিনেতা হব বলে ব্লাউজ পিস গামছা বুনেছি, শরীর কালো করেছি। ইন্ডাস্ট্রি আমাকে অভিনেতা হিসেবে কোনো জায়গা দেয়নি। তখন বাধ্য হয়েই আমি গান ও পরিচালনার কাজে চলে আসি। এখন কেউ কেউ অভিনয় করতে ডাকেন। কিন্তু আমি খুব বেশি অভিনয় করতেও চাই না, অনেক চেষ্টা করেছি পারিনি। এখন অভিনেতা হওয়ার বয়সটাও যে নেই। পরিচালনা করতেই এখন ভালো লাগে।

বাণিজ্যিক ছবি করতে চেয়েছিলেন একটা সময়। সেই ইচ্ছে কি এখনো আছে?

করে দেখেছিলাম। কিন্তু আমার দর্শকের সেগুলো পছন্দ হল না! আজ এখানেই থাক।

ভালো থাকবেন।

তুমিও।

ডেইলি বাংলাদেশ/এনকে

Best Electronics
Best Electronics