104682 গাধার দুধে ত্বকের তত্ত্ব
Best Electronics

গাধার দুধে ত্বকের তত্ত্ব

লাইফস্টাইল ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৯:১৭ ১৪ মে ২০১৯   আপডেট: ১৯:২৩ ১৪ মে ২০১৯

রূপচর্চায় গাধার দুধের ব্যবহার, কথাটি অবাক হলেও সত্যি। প্রাচীন আর্য়ুবেদ শাস্ত্রেও গাধার দুধ ব্যবহারের উল্লেখ রয়েছে। আজ থেকে ২০০০ বছর আগে পানির সঙ্গে গাধার দুধ মিশিয়ে গোসল করা হতো। শুধু তাই নয় এই দুধ পানও করা হতো। বর্তমানে এর মূল্য অনেক। অ্যান্টিএজিং ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ক্রিম তৈরিতে গাধার দুধ সবচেয়ে বেশি ব্যবহার করা হচ্ছে। তাছাড়া এই বহুমূল্যের দুধ দিয়েই তৈরি হচ্ছে বড় ও ছোটদের শ্যাম্পু, সাবান, ফেয়ারনেস ক্রিম, টোনার, লোশন ইত্যাদি আরও অনেক কিছু । এছাড়া গাধার দুধ খুব ভালোমানের বেবিফুডও। ফলে চিকিৎসকরাও এই দুধ পান করানোর পরামর্শ দিয়ে থাকেন। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক গাধার দুধের উপকারিতা-   

 

১. গাধার দুধকে মাতৃদুগ্ধের সমতুল্য বলে বিবেচনা করা হয়।

২. ত্বকের জন্য এই দুধ বেশ উপকারি। তাই প্রসাধনী সামগ্রী তৈরিতে এটি ব্যবহার করা হয়।

৩. শিশুদের ত্বকের যত্ন্রে এই দুধে সাবান-শ্যাম্পু তৈরি হয়।

৪. শিশুদের গ্যাস্ট্রিক ও অ্যালার্জির সমস্যা সমাধানে গাধার দুধ বেশ উপকারি।

৫. এই দুধে গুরুত্বপূর্ণ ফ্যাটি অ্যাসিড ও ভিটামিন রয়েছে। ফলে যাদের গরুর দুধে সমস্যা রয়েছে তারা নির্ভয়ে গাধার দুধ খেতে পারেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএ  

Best Electronics