গাজীপুরে ভাড়াটিয়া সেজে শিশু অপহরণ, হোতাসহ আটক ২

গাজীপুরে ভাড়াটিয়া সেজে শিশু অপহরণ, হোতাসহ আটক ২

গাজীপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২০:৫৩ ১১ জুলাই ২০২০  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

গাজীপুরে ভাড়াটিয়া সেজে শিশু অপহরণ চক্রের হোতাসহ দুইজনকে আটক করেছে র‌্যাব। শুক্রবার রাতে গাজীপুর মহানগরীর গাছা থানাধীন সাইনবোর্ড এলাকায় থেকে তাকে আটক করা হয়।

আটকরা হলেন, মো. আমির হোসেন সাগর ও মো. আজম শেখ।

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের গাছা মধ্যপাড়া এলাকার আব্দুল কাদেরের পাঁচ বছরের ছেলে আব্দুল্লাহকে গত শুক্রবার মেট্রোপলিটন গাছা থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে মাদারীপুরের শিবচর থেকে উদ্ধার করে। 

অপহৃত শিশুটির মা সাজেদা আক্তারের স্বামী আব্দুল কাদের গ্রীস প্রবাসী হওয়ায় ছেলে আব্দুল্লাকে নিয়ে ঘরে তিনি একাই থাকতেন। বাড়িতে কয়েকটি ঘরে ভাড়াটিয়া থাকলেও একটি ঘর খালি ছিল।

গত ৭ জুলাই মঙ্গলবার দুপুরে এক নারী ঘর ভাড়া নেয়ার জন্য আসে। পরে দুই হাজার টাকায় সে ঘরটি ভাড়া নেয়। পরের দিন বুধবার দুপুর ১২টার দিকে ওই ভাড়াটিয়া নারী সাজেদার ছেলে আব্দুল্লাকে কোলে নিয়ে কিছু কিনে দেয়ার কথা বলে বাসা থেকে বের হয়। পরে ওই নারী ছেলেকে নিয়ে বাসায় না ফেরায় সম্ভাব্য সব স্থানে খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে সাজেদার মোবাইলে একটি ফোন আসে। ফোনে ওই নারী আব্দুল্লাহকে অপহণের কথা জানায় এবং মুক্তিপণ বাবদ সাত লাখ টাকা দাবি করে। এ সময় অপহরণের বিষয়টি পুলিশকে জানালে আব্দুল্লাহকে খুন করে লাশ গুম করার হুমকি দেয়।

র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল শাফী উল্লাহ বুলবুল জানান, অপহৃত শিশু আব্দুল্লাহকে উদ্ধারের জন্য র‌্যাব-১ এর কাছে আইনগত সাহায্য চাওয়া হয়। এরই প্রেক্ষিতে র‌্যাব-১ দ্রুততার সঙ্গে ছায়া তদন্ত শুরু করে এবং গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করে। গত ১০ জুলাই রাত সাড়ে ১১টার দিকে র‌্যাব-১ এর একটি আভিযানিক দল অভিযান চালিয়ে গাজীপুর মহানগরীর গাছা থানার সাইনবোর্ড এলাকা থেকে এই অপহরণকারী চক্রের পরিকল্পনাকারী নড়াইল জেলার লোহাগড়া থানার উল্লা গ্রামের সামসুর রহমানের ছেলে মো. আমির হোসেন সাগরকে আটক করে। 

পরে তার দেয়া তথ্যমতে র‌্যাব আব্দুল্লাহকে উদ্ধারের জন্য ঢাকা জেলার আশুলিয়া থানা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে এই অপহরণের সঙ্গে জড়িত অপর আসামি একই থানার পাটগাতী গ্রামের খোরশেদ শেখের ছেলে মো. আজম শেখকে আটক করে। র‌্যাব অপহৃতকে উদ্ধার এবং এই অপহরণের অপর সহযোগী ওই নারীকে আটকের জন্য কেরানীগঞ্জ এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে। 

গাজীপুর ও রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন স্থানে অপহৃতকে উদ্ধার এবং অপহরণকারীদের আটকের জন্য র‌্যাবের সাঁড়াশি অভিযানে অপহরণকারী নারী আব্দুল্লাহকে নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় ধরা পড়ার ভয়ে মাদারীপুরের শিবচর থানার কাঁঠালবাড়ী ফেরি ঘাট এলাকায় আব্দুল্লাহকে রেখে দ্রুত পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে স্থানীয়রা আব্দুল্লাহকে মাদারীপুরের শিবচর থানায় হস্তান্তর করে।

আটকরা পরস্পর যোগসাজশে মুক্তিপণ আদায়ের উদ্দেশে আটক আমির হোসেন সাগর তার পঞ্চম স্ত্রীকে দিয়ে শিশু আব্দুল্লাহকে অপহরণ করেছিল। আটকরা পেশায় গার্মেন্টস কর্মী। 

আটকরা জিজ্ঞাসাবাদে জানায়, তারা একটি সংঘবদ্ধ অপহরণকারী চক্রের সদস্য। তারা দীর্ঘ দিন ধরে গাজীপুরের বিভিন্ন এলাকায় অপহরণ, অজ্ঞান করে লুটসহ নানা অপরাধমূলক কাজের সঙ্গে জড়িত।

তারা আরো জানায়, এ কাজে সহায়তার জন্য তাদের একাধিক স্ত্রী রয়েছে। তারা দীর্ঘদিন ধরে ধনী পরিবারদেরকে টার্গেট করে বিভিন্ন বাসায় এসব স্ত্রীদের দিয়ে বাসা ভাড়া নেয় তারপর বাসার মালিকদের সঙ্গে সুসম্পর্ক হওয়ার পর সুযোগ বুঝে বাচ্চা অপহরণ, নেশা জাতীয় দ্রব্য খাইয়ে অজ্ঞান করে বাসা লুট, নগ্ন ছবি তুলে বাড়ির মালিকদের জিম্মি করে টাকা আদায় করে।

এ ঘটনায় জিএমপি’র গাছা থানায় মামলা হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ