গাজীপুরে বিএনপি এখন ঘরোয়া দল

গাজীপুরে বিএনপি এখন ঘরোয়া দল

শামসুল হক ভূঁইয়া, গাজীপুর ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৩:১৪ ৬ জুন ২০২০  

সংগৃহীত

সংগৃহীত

দীর্ঘদিন ধরেই গাজীপুর বিএনপি দুই ধারায় বিভক্ত হয়ে আছে। দলীয় কোন্দলে দলটির নেতাকর্মীরা কেন্দ্রীয় কর্মসূচিসহ সব ধরনের কর্মকাণ্ডে নিজেদের গুটিয়ে রেখেছেন।

সাবেক প্রতিমন্ত্রী ও সিটি কর্পোরেশনের প্রথম মেয়র অধ্যাপক এমএ মান্নান দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ রয়েছেন। তিনি বর্তমানে দলীয় কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণ করলেও তার অনুসারীরা মহানগর বিএনপির সভাপতি হাসান উদ্দিন সরকারকে বিরোধীতা করে দলীয় কর্মকাণ্ড চালাচ্ছেন।

মান্নান অনুসারী হাসান সরকারের চাচাতো ভাই শ্রমিক দলের কেন্দ্রীয় কমিটির কার্যকরি সভাপতি সালাউদ্দিন সরকারের নেতৃত্বে মহানগর বিএনপির বড় একটি অংশ দলীয় কাজ করছেন। এতে দলীয় কোন্দল এখন প্রকাশ্যে রূপ নিয়েছে। এর ফলে দলের ভাবমূর্তি নষ্ট ও সংগঠন অবকাঠামো দুর্বল হয়ে পড়েছে। এসব কিছু প্রকাশ্যে এসেছে দলটির অসহায় কর্মহীন মানুষের পাশে না দাঁড়ানো এবং দলীয় প্রতিষ্ঠাতার মৃত্যুবার্ষিকী পালনকে ঘিরে।

করোনাকালীন সময় ত্রাণ ও সহায়তা বিতরণকে কেন্দ্র করে কেন্দ্রীয় নেতাদের এক নেতা দুই বলয়ে এসে ত্রাণ বিতরণ করতে দেখা গেছে। কেন্দ্রীয় কর্মসূচিগুলো পালন হলেও দলাদলিতে স্থানীয়ভাবে তাদের কোনো রাজনৈতিক তৎপরতা বর্তমানে  চোখে পড়ে না।

দলের প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী গাজীপুর মহানগর বিএনপির বিভিন্ন স্তরের নেতারা পৃথকভাবে পালন করেছেন। অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা নিজ নিজ বলয়ের হয়ে কাজ করলেও দলীয় কোন কর্মকান্ড তেমন একটা নেই।

গাজীপুর বিএনপির গ্রুপিং দীর্ঘদিনের থাকলেও এই লকডাউনও দলটিকে এক করতে পারেননি নেতারা। নেতাকর্মীরা বলেন, দলীয় কোন্দলের কারণে কর্মসূচি পালনে কর্মীরা এগিয়ে আসে না। পৃথকভাবে করোনা পরিস্থিতিতে কর্মহীন মানুষের পাশে কিছু সহযোগিতা কেউ কেউ করলেও কর্মীরা এর তেমন সুফল না পাওয়ায় তাদের ক্ষোভ বাড়ছে।

এক সময়ে গাজীপুর বিএনপির নেতাকর্মীরা যৌথভাবে দলীয় কর্মসূচি পালনে আধিপত্য বিস্তার করে থাকতো। বর্তমানে গাজীপুর বিএনপি ঘরোয়া দলে পরিণত হয়ে পড়েছে।

একটি পক্ষের নেতৃত্বে আছেন মহানগর বিএনপির সভাপতি হাসান উদ্দিন সরকার। তার সঙ্গে আছেন জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম ফজলুল হক মিলন, মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. সোহরাব উদ্দিনসহ তাদের অনুসারীরা।

আরেকটি পক্ষের নেতৃত্বে আছেন একাদশ সংসদ নির্বাচনের গাজীপুর-২ আসনের বিএনপির দলীয় প্রার্থী মো.সালাউদ্দিন সরকার। তার সঙ্গে আছেন সাবেক প্রতিমন্ত্রী ও সাবেক সিটি মেয়র অধ্যাপক এম এ মান্নান, জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি শরাফত হোসেন, সাবেক সিটি কাউন্সিলর শেখ মোহাম্মদ আলেকসহ তাদের অনুসারীরা।

এ বিষয়ে মহানগর বিএনপির সভাপতি হাসান উদ্দিন সরকার জানান, বিএনপি এখন প্রতিহিংসা ও অপপ্রচারের শিকার। নেতাকর্মীরা সাংগঠনিক কর্মকান্ডে সক্রিয় ভূমিকা পালন করতে পারছে না বিভিন্ন কারণে। তবে মহানগর বিএনপিতে কোনো গ্রুপিং নেই। কমিটি নিয়ে সামান্য ভুল বোঝাবুঝি থাকলেও তা ঠিক হয়ে যাবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এস