Alexa গরু দেশি, দাম বেশি

গরু দেশি, দাম বেশি

জহিরুল ইসলাম শিবলু, লক্ষ্মীপুর ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৬:০৩ ৬ আগস্ট ২০১৯  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ঈদুল আজহার আর মাত্র কয়েক দিন বাকি। লক্ষ্মীপুরের বিভিন্ন উপজেলায় এরইমধ্যে জমে উঠেছে পশুর হাট। প্রতিদিন হাটগুলোতে আসছে প্রচুর গরু-ছাগল।

মজুচৌধুরীর হাট, লক্ষ্মীপুর পৌর বাজারসহ কয়েকটি পশুর হাট ঘুরে দেশি গরুর আধিপত্য দেখা গেছে।

বিক্রেতারা জানান, এবার ভারত, মিয়ানমার, ভুটান থেকে গরু-মহিষ কম আসছে। তাই কোরবানির হাটে দেশি গরু বেশি আসছে। গো-খাদ্যের দাম বাড়ায় গরুর দামও তুলনামূলক বেশি। এতে দেশি গরুর খামারিরা লাভবান হবেন।

মজুচৌধুরীর হাটে আসা গরুরা ব্যাপারীরা চাঁদাবাজির অভিযোগ করেছেন। তারা জানান, এ হাটে তাদের কাছ থেকে গরু প্রতি ১২০ টাকা, প্রতি ট্রাক গরু এক হাজার টাকা করে চাঁদা নিচ্ছে প্রভাবশালীরা। এ কারণেও গরুর দাম কিছুটা বেশি।

ক্রেতারা জানান, হাটের শুরুতে চাপ কম থাকে। তাই দাম কিছুটা কম হওয়ার কথা। কিন্তু এবার শুরু থেকেই দাম বাড়িয়ে দিয়েছে ব্যবসায়ীরা। তাই অনেককে খালি হাতেই ফিরতে হয়েছে।

লক্ষ্মীপুর পৌর গরুর হাটে আসা মো. এমরান হোসেন বলেন, গতবছর মাঝারি আকারের গরু ৬০-৭০ হাজার টাকায় পাওয়া গেছে। এবার একই আকারের গরু ৯০ হাজারের নিচে কেনা যাচ্ছে না।

হাট কর্তৃপক্ষের তথ্য অনুযায়ী, এ হাটে এক লাখ টাকার মধ্যে গরুর খাজনা ধরা হায়েছে এক হাজার টাকা। এক লাখের বেশি দামের গরুর খাজনা দেড় থেকে দুই হাজার টাকা। হাটে ছিনতাই-চাঁদাবাজি ঠেকাতে ও ক্রেতা-বিক্রেতার নিরাপত্তায় পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

লক্ষ্মীপুরের এসপি ড. এ.এইচ.এম কামরুজ্জামান বলেন, হাটগুলোতে পুলিশের মোবাইল টিম কাজ করছে। গরু ব্যাপারীদের টাকার নিরাপত্তায় মানি স্কটের ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞার পরও যেসব স্থানে পশুর হাট বসানো হয়েছে। সেগুলো উচ্ছেদ করা হচ্ছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর

Best Electronics
Best Electronics