ক্লিনিকের ভেতরেই কিশোরী নার্সকে ধর্ষণ, চিকিৎসক গ্রেফতার

ক্লিনিকের ভেতরেই কিশোরী নার্সকে ধর্ষণ, চিকিৎসক গ্রেফতার

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ০৩:১২ ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

সাতক্ষীরা শহরের শিমুল ক্লিনিক। ফাইল ছবি

সাতক্ষীরা শহরের শিমুল ক্লিনিক। ফাইল ছবি

সাতক্ষীরায় ক্লিনিকের ভেতরেই কিশোরী নার্সকে চেতনা নাশক খাইয়ে ধর্ষণ মামলায় এক চিকিৎসককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতার চিকিৎসকের নাম রিয়াজুল ইসলাম রিয়াজ। তিনি ওই ক্লিনিকে কর্মরত ছিলেন।

বুধবার সাতক্ষীরা শহরের শিমুল ক্লিনিকে এ ঘটনা ঘটে। শুক্রবার সকালে ওই নার্সকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ধর্ষণের শিকার কিশোরী জানান, তিনি ১৫ দিন আগে শিমুল ক্লিনিকে নার্সের চাকরি নেন। যোগদানের পর থেকেই তাকে অন্য নজরে দেখতেন ডা. রিয়াজ। প্রায়ই তাকে উত্যক্ত করতেন ও অনৈতিক প্রস্তাব দিতেন।

তিনি জানান, বুধবার রাতেও একইভাবে তাকে অবৈক প্রস্তাব দেন ওই চিকিৎসক। রাজি না হওয়ায় কৌশলে কোমল পানীয়র সঙ্গে চেতনা নাশক খাওয়ান। এক পর্যায়ে তিনি অচেতন হয়ে পড়লে ক্লিনিকের কর্মচারী মাহমুদের সহায়তায় তাকে ছাদে কয়েকবার ধর্ষণ করেন ডা. রিয়াজ। জ্ঞান ফেরার পর বাইরে যেতে চাইলে তাকে একটি ঘরে আটকে রাখেন ক্লিনিকের মালিক শহিদুল ও তার ছেলে মিঠুন। টানা দুইদিন তাকে আটকে রাখা হয়। ওই সময় ডা. রিয়াজের সঙ্গে বিয়ের প্রলোভনও দেখায় তারা।

ওই কিশোরীর পরিবারের সদস্যরা জানান, দুইদিন ধরে তার কোন খোঁজ না পেয়ে তারা বিষয়টি পুলিশকে জানান। শুক্রবার সকালে শিমুল ক্লিনিকে অভিযান চালিয়ে তাকে উদ্ধার করে পুলিশ। এরপর তাকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সাতক্ষীরা সদর থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ডা. রিয়াজুল ইসলাম রিয়াজ, শিমুল ক্লিনিকের মালিক শহিদুল, তার ছেলে মিঠুনসহ কয়েকজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন ধর্ষণের শিকার কিশোরী। এরইমধ্যে ওই চিকিৎসককে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর