ক্যাকটাস থেকেই তৈরি হচ্ছে নিরামিষ চামড়া

ক্যাকটাস থেকেই তৈরি হচ্ছে নিরামিষ চামড়া

ফিচার ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৬:০৪ ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

ছবি: অ্যান্ড্রি-এন এল-পেজ ভেলার্ডে ও মার্টে সি-জারেজ

ছবি: অ্যান্ড্রি-এন এল-পেজ ভেলার্ডে ও মার্টে সি-জারেজ

সারাবিশ্বেই চামড়ার তৈরি ব্যাগ, জুতার চাহিদা তুঙ্গে। আর এসব চামড়ার যোগান দিতে বছরে অনেক পশু হত্যা করা হচ্ছে। অনেক বন্যপ্রাণী আছে যা আজ এ শিল্পের কারণে বিলুপ্ত প্রায়। 

জানেন কি? চামড়ার শিল্পে সবচেয়ে বেশি কদর রয়েছে কুমিরের চামড়ার। যদিও বাড়তি চামড়ার যোগান দিতে বিভিন্ন দেশে প্রাণী চাষ করা হচ্ছে। তবুও দিন দিন চাহিদার মাত্রা বেড়ে যাওয়ায় এতেও হিমশিম খেতে হয় এ শিল্পকে। তবে চামড়ার জন্য আর পশু হত্যা করতে হবে না। এমনটাই দাবি করছেন, অ্যান্ড্রি-এন এল-পেজ ভেলার্ডে এবং মার্টে সি-জারেজ নামে দুই মেক্সিকান যুবক। 

সম্প্রতি তারা আবিষ্কার করেছেন কৃত্রিম এক চামড়া। যেটি তৈরি করা হয়েছে ফনিমনসা জাতীয় ক্যাকটাস থেকে। এই চামড়া তৈরি করতে তারা কোনো ক্ষতিকর রাসায়নিকও ব্যবহার করেননি। তারপরও এ চামড়া দ্বারা তৈরি বিভিন্ন বস্তু অন্তত ১০ বছর টিকবে। এছাড়াও এই চামড়া অনেক নমনীয়। তাই এটি দিয়ে তৈরি করা যাবে ব্যাগ, জুতা, জ্যাকেটসহ আসবাবপত্র ও গাড়ির কভারও। 

এছাড়াও ফনিমনসা থেকে তৈরি এসব চামড়া অন্যান্য পশুর চামড়া থেকেও বেশি পরিবেশ বান্ধব। ফলে ব্যবহারের পর এই চামড়ার তৈরি দ্রব্য ফেলে দিলে মাটির সঙ্গে মিশে যাবে। পশুর শরীর থেকে চামড়া সংগ্রহ করার পর তা ব্যবহারযোগ্য করে তুলতে প্রায় ২৫০ রকমের দ্রব্য ব্যবহার করা হয়। এই দ্রব্যগুলোর মধ্যে রয়েছে ফর্মালডিহাইড, সায়ানাইড, আর্সেনিক ও ক্রোমিয়ামের মতো পদার্থ। যা শরীরের পাশাপাশি পরিবেশেরও ক্ষতি করে। এমনকি এগুলো পানিতে মিশলেও তা দূষিত হয়ে যায়।

ভেলার্দে জানিয়েছেন, কয়েক বছর আগে এমন চামড়ার মতো দ্রব্য তৈরির কথা তাদের মাথায় আসে। আর সে কাজে তারা বেছে নেন ফনিমনসা জাতীয় ক্যাকটাস। কারণ এগুলো বেড়ে ওঠার জন্য খুব কম পানির প্রয়োজন হয়। আর পুরো মেক্সিকো জুড়েই এই ক্যাকটাস বেশ সহজলভ্য ছিল। যে কোম্পানি এই চামড়া ব্যবহার করবে, তাদের কারখানায় প্রায় ২০ শতাংশ পানি কম লাগবে বলেও দাবি করেছেন ভেলার্দে। তিনি আরো জানান, এই চামড়া ব্যবহারে বিশ্বে প্লাস্টিকের ব্যবহার প্রায় ৩২ থেকে ৪২ শতাংশ কমে যাবে।  

এরইমধ্যে এই চামড়া থেকে প্রচুর পরিমাণে পরিধানযোগ্য দ্রব্য তৈরি করা হচ্ছে। বিভিন্ন কোম্পানিই এই নিরামিষ চামড়া ব্যবহারে উদ্যোগী হয়েছেন। এমনকি পোর্সার নতুন ‘টাইক্যান’ ইলেকট্রিক গাড়িতে ক্রেতার চাহিদা মতো এই চামড়া ব্যবহার করা হচ্ছে।  

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএমএস