Alexa কোথায় পড়ে আছে আমার ছোঁয়া?

কোথায় পড়ে আছে আমার ছোঁয়া?

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ০৪:২৬ ১৩ নভেম্বর ২০১৯   আপডেট: ০৬:৩৪ ১৩ নভেম্বর ২০১৯

ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

মেয়ের মৃত্যুর খবরে নিজেদের ব্যথা যেন গায়ে লাগছিল না। বারবারই সন্তানের কথা জানতে চাচ্ছিলেন। একটাই প্রশ্ন, কোথায় পড়ে আছে আমার ছোঁয়া। কিন্তু উত্তর নেই কারো কাছে। জানা থাকলেও আদরের মেয়েকে হারানো পাগলপ্রায় বাবা-মাকে সান্ত্বনা দেয়ার ভাষাও খোঁজে পাচ্ছেন না কেউ। 

মেয়ের মৃত্যুতে নির্বাক হয়ে পড়েছেন তার মা-বাবা। কথা বলতে গিয়ে সোহার মা কান্নায় ভেঙে পড়েন। কান্নার বিলাপে একটা প্রশ্ন, আমার ছোঁয়া কোথায় পড়ে আছে।

মা-বাবার সঙ্গে ট্রেনে চট্টগ্রাম যাচ্ছিল আড়াই বছর বয়সী আদিবা আক্তার ছোঁয়া। মায়ের বুকেই নিশ্চিন্তে ঘুমাচ্ছিল আদরের মেয়ে। কিন্তু এই ঘুমই তাকে নিয়ে গেল চিরঘুমে।

মঙ্গলবার ভোর রাতে ট্রেন দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে ফুটফুটে শিশু আদিবা আক্তার ছোঁয়ার। তার লাশ পড়ে ছিল ব্রাহ্মণবাড়িয়ার হাসপাতালে। অপরদিকে আহত হয়ে তার মা-বাবা কাতরাচ্ছিলেন ঢাকার হাসপাতালে।

ছোঁয়ার বাবা হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলার তাম্বুলিটুলা গ্রামের সোহেল মিয়া জানান, তিনি ও তার স্ত্রী নাজমা বেগম চট্টগ্রামের একটি কোম্পানিতে চাকরি করেন। বৃহস্পতিবার তারা বাড়ি আসেন। সোমবার স্ত্রী ও ২ সন্তানকে নিয়ে কর্মস্থলের উদ্দেশে রওয়ানা হন। পথে ট্রেন দুর্ঘটনায় আড়াই বছর বয়সী একমাত্র মেয়ে আদিবা আক্তার ছোঁয়া মারা যায়।

এ ঘটনায় আহত হন সোহেল মিয়া, তার স্ত্রী ও সাড়ে ৪ বছর বয়সী ছেলে নাছির। তারা এখন ঢাকায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ