কে কাকে ছেড়েছেন? চুমু, বয়সে বড় নাকি অন্য কিছু...

কে কাকে ছেড়েছেন? চুমু, বয়সে বড় নাকি অন্য কিছু...

সৈয়দা সাদিয়া ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২২:৩৩ ২১ মে ২০১৯   আপডেট: ২২:৩৯ ২১ মে ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

সিনেমার ক্ষেত্রে তারকা বাছাইয়ে বেশ বেগ পেতে হয় পরিচালকদের। বিশেষ করে কোনো সুপারস্টারকে নিয়ে কাজ করতে গেলে এই সমস্যাটা বেশি পোহাতে হয় তাদের। পৃথিবীর সব দেশেই কিন্তু এই সমস্যা বিদ্যামান। শুধু বলিউড বলে নয়, ঢালিউড হলিউডেও রয়েছে এমন সমস্যা। 

তবে আজ ডেইলি বাংলাদেশের পাঠকদের জন্য রয়েছে শুধু বলিউড সিনেমা নিয়ে আলোচনা, যাতে আলোকপাত করা হবে তারকা বাছাইয়ের ক্ষেত্রে কীভাবে বেগ পেতে হয় পরিচালকদের। আজ পাঠকদের বলিউডের এমন কিছু সিনেমার গল্প শোনাবো, যেখানে নায়ক অথবা নায়িকা, তাদের সহশিল্পী বাছাই করতে গিয়ে নির্মাতাদের অনেকটা ভুগিয়েছেন। এমনও হয়েছে, সহশিল্পী পছন্দ না হওয়ায় সিনেমায় কাজও ছেড়ে দিয়েছেন। চলুন দেখা যাক, এমন কিছু সিনেমার শুরুর কথা।

রণবীর সিং ও ক্যাটরিনা কাইফ

রণবীর সিং ও ক্যাটরিনা কাইফ। দু’জনই বলিউডের জনপ্রিয় তারকা। বলতে গেলে কেউ কারো চেয়ে কম না। নায়কদের মধ্যে রণবীর সিং প্রথম সারির হলেও নায়িকাদের মধ্যে ক্যাটরিনাও কিন্তু দ্বিতীয় সারির না। অর্থাৎ দু’জনের জনপ্রিয়তা কিন্তু একই। তারপরেও ‘বার বার দেখো’ সিনেমায় ক্যাটরিনার সঙ্গে কাজ করতে আপত্তি জানিয়েছিলেন রণবীর। 

যদিও বা ক্যাটরিনার সঙ্গে তার কোনো দন্দ্ব ছিল না, ব্যক্তিগত সমস্যাও ছিল না। তারপরেও এমনটা করেছিলেন রণবীর সিং। তবে পরে জানা গেল, ওই সময় ক্যাটরিনা নাকি দীপিকা পাড়ুকোনের সাবেক এক্স অর্থাৎ রণবীর কাপুরের সঙ্গে প্রেম করছিলেন। যে কারণে দীপিকা-ক্যাটরিনার দন্দ্বে রণবীর নাকি এমনটা করেছিলেন। তিনি চাননি তার কোনো কাজের জন্য দীপিকা কষ্ট পাক।  

ক্যাটরিনা কাইফ ও আদিত্য রয় কাপুর

ক্যাটরিনা কাইফ অবশ্য সহশিল্পী বাছাইয়ের ক্ষেত্রে তেমন ঝামেলা করেন না, বিশেষ কোনো কারণ না থাকলে। তারপরেও তিনি একটি সিনেমার জন্য বিপরীতে আদিত্য রয় কাপুরকে বয়কট করেছিলেন। তবে তারও একটি কারণ ছিল, ওই সময় ক্যাটরিনার ‘ফিতুর’ ও ‘জাগ্গা জাসুস’ নামে দু’টি সিনেমা পর পর ফ্লপ হয়েছিল। এরপর ক্যাটরিনা মনটা অনেক খারাপ ছিল। আর এর মধ্যে ‘ফিতুর’ সিনেমাটি তিনি আদিত্য রয় কাপুরের সঙ্গে জুটি বেঁধে করেছিলেন। ফলে ক্যাটরিনা চাননি তার সঙ্গে আরেকটি ছবি করে ফ্লপের খাতায় হ্যাটট্রিক করতে। এই কারণে ক্যাটরিনা সিনেমাতিতে না করেছিলেন।

কারিনা কাপুর ও ইমরান হাশমি

বলিউড কিসার ইমরান হাশমি। তার সঙ্গে কাজ করতে অনেকেই ভয় পান। কারণ, তিনি যেভাবে কিস করেন, সেভাবে ক্যামেরার সামনে অনেকে নিতে পারেন না। কার্যত এই কারণে সে ভয়! অপরদিকে, ক্যারিয়ারের একদম গোড়া থেকেই কারিনা সহশিল্পী নির্বাচনের ব্যাপারে বেশ খুঁতখুতে। তার অভিনয়ের শুরু থেকে তিনি কেবল শীর্ষ তারকাদের সঙ্গেই কাজ করতেন। 

যে কারণে কারিনার পছন্দের তালিকায় কখনোই স্থান পাননি এমরান হাশমি। তাই ২০১৩ সালে করণ জোহর ও একতা কাপুরের যৌথ প্রযোজনার সিনেমা ‘বাত্তামিজ দিল’ সিনেমা থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন কারিনা। তার কারণ ছিল, ওই সিনেমায় নায়ক হিসেবে রাখা হয়েছিল ইমরানকে। এমনকি তাতে নায়কের সঙ্গে কারিনার চুমুর দৃশ্য ছিল, যেটা ক্যামেরার সামনে দিতে পারবেন না বলে তিনি ছবিটি ছেড়েছিলেন। 

রণবীর কাপুর ও সোনাক্ষী সিনহা

রণবীর কাপুর ও সোনাক্ষী সিনহা। কেউ কোনো অংশে কম নয়। হয়তো অভিনয়ে রণবীরের অভিনয় অনেক ভালো হবে, তবে জনপ্রিয়তায় সোনাক্ষী মোটেও পিছিয়ে নেই। তারপরেও রণবীর কাপুরের ধারণা ছিল, তার পাশে সোনাক্ষীকে একটু বেশিই বুড়ো লাগবে। এই অজুহাতে তিনি একটি রোম্যান্টিক কমেডি সিনেমায় সোনাক্ষীর বিপরীতে কাজ করতে আপত্তি জানান। প্রযোজককে নায়িকা পাল্টাতেও অনুরোধ করেন। কিন্তু প্রযোজক নাছোড়বান্দা, সোনাক্ষীকে ছাড়া তার হবে না, তাই পরে রণবীর নিজেই সিনেমাটি ছেড়ে দেন।

ক্যাটরিনা কাইফ ও অর্জুন কাপুর

আগেই বলেছি, ক্যাটরিনা কোনো বিশেষ কারণ ছাড়া সহশিল্পী নিয়ে মাথা ঘামান না। তেমনি একটি কারণ অর্জুন কাপুর। যে কিনা তার চেয়ে অল্প বয়সী ছিলেন। যে কারণে শ্রদ্ধা কাপুরের আগে ‘হাফ গার্লফ্রেন্ড’ সিনেমার জন্য অর্জুন কাপুরের বিপরীতে প্রথম ক্যাটরিনা কাইফকে প্রস্তাব করা হলে, তিনি সেই প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন। তবে এটি ছাড়া তাদের দুজনের মধ্যে একান্ত কোনো ঝামেলা নেই। শুধু বয়সের কারণে এমনটা করেছিলেন নায়িকা।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসআই