Alexa কেমন আছেন লেখক হুমায়ূন?

কেমন আছেন লেখক হুমায়ূন?

মনদীপ ঘরাই ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:২৮ ১৯ জুলাই ২০১৯  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

চারপাশে প্রতিদিনই মানুষ মরছে। ঘটনা-দুর্ঘটনায় মরছে। প্রকৃতির এটাই তো নিয়ম। এর মাঝে কারও মৃত্যুদিবস এখন আর আবেগতাড়িত করে না তেমন। তবু কিছু কিছু মৃত্যুদিবস অনেক কিছুই মনে করিয়ে দেয়। আজ মনে পড়ছে প্রিয় সাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদকে। 

২০১২ সালের এই দিনে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছিলেন তিনি। মনে না পড়ে উপায় কী, বলতে পারেন? বিছানায় আমার মাথার পেছনে এখনো ’জোছনা ও জননীর গল্প‘  বইটা রাখা। এভাবেই কোটি পাঠকের সঙ্গে মিশে আছেন একজন হুমায়ূন আহমেদ।

অকপটে স্বীকার করি, প্রিয় লেখকের সঙ্গে দেখা হয়নি কখনো। সেটা অবশ্য প্রয়োজনও ছিল না। কারণ, লেখকের সঙ্গে পাঠকের সম্পর্কের বড় যোগসূত্রটা ‘বই’। হুমায়ূন আহমেদ চলে গেছেন, রয়ে গেছে তার লেখা বই। লেখক হুমায়ূনকে ভালোবাসতে ওটুকুই যথেষ্ট।

ব্যক্তি হুমায়ূন এবং লেখক হুমায়ূনকে আলাদা করতে পারলেই আমাদের সামাজিক স্বস্তি মেলে। আমরা ব্যক্তি হুমায়ূনকে সবার জানা কারণেই দোষারোপ করি, আর লেখক হুমায়ূনকে মনের কোণে ঠাঁই দিয়ে রেখেছি যত্ন করে। আজ লেখক হুমায়ূনের মৃত্যুবার্ষিকী। পাঠক হিসেবে সেটাই জরুরি। 

‘বোতল ভুত’ দিয়ে হুমায়ূন উপাখ্যান শুরু করেছিলাম ক্লাস ওয়ানে। ছুটির দুপুরে খাবার সময়ের নিত্যসঙ্গী ছিল।

এরপর আর থামা হয়নি। বইয়ের পাতার মাঝে হারিয়ে কতবার যে হিমু, মিসির আলী আর শুভ্রতে পরিণত হয়েছি তার ইয়ত্তা নেই। হোটেল গ্রেভার ইন পড়তে গিয়ে নিজেকে আবিষ্কার করেছি বিদেশ বিভুঁইয়ে! 

লেখক হুমায়ূন পাঠককে নিজের লেখার আবেশে বাঁধতে জানতেন, নিজের মতো গড়তে জানতেন। তাই তো, আজো রাতের রাস্তায় হাজারো হিমু হেঁটে বেড়ায়।

আজকের দিনটা ব্যক্তি হুমায়ূনের মৃত্যুর, আর লেখক হুমায়ূনের পুনর্জন্মের। বিশ্বাস হচ্ছে না? আরে, আজকের দিনেই তো ব্যক্তি হুমায়ূনের সীমাবদ্ধতা কাটিয়ে লেখক হুমায়ূন ঠাঁই পেয়েছেন সবার হৃদয়ে।পাকাপোক্তভাবে।

সমুদ্র বিলাস প্রাইভেট লিমিটেড নাটকটা মনে আছে? সেলিম চৌধুরীকে দিয়ে গাইয়েছিলেন,

‘ও আমার ভাই, মনে শান্তি নাই
সবাই ঘুমায় সুখের নিদ্রায়,আমার নিদ্রা নাই
যাই, যাই,যাই সমুদ্রে যাই’

আপনি শান্তিতে ঘুমান, প্রিয় হুমায়ূন স্যার। কোটি পাঠক হৃদয়ের বিছানা সাজিয়ে তৈরি ছিল, আছে এবং থাকবে।

লেখক: সিনিয়র সহকারী সচিব, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
 

Best Electronics
Best Electronics