Alexa হারানো চেক যখন ব্যবসায়ীর ‘গলার কাঁটা’

হারানো চেক যখন ব্যবসায়ীর ‘গলার কাঁটা’

কুমিল্লা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২২:০১ ১৬ জানুয়ারি ২০২০   আপডেট: ২৩:০৯ ১৬ জানুয়ারি ২০২০

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

কুমিল্লায় চেক বই হারিয়ে বিপাকে পড়েছেন এক আবাসন ব্যবসায়ী। প্রতারক চক্রের হাতে পড়া হারানো চেক বই এখন তার ‘গলার কাঁটা’ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী মো. মোবারক হোসেন নগরীর দ্বিতীয় মুরাদপুর এলাকার লিয়াকত আলীর ছেলে।

অভিযুক্ত মো. একরামুল হক চৌদ্দগ্রাম উপজেলার ফকিরহাট গ্রামের গোলাম হোসেনের ছেলে।

মোবারক হোসেন বলেন, ২৩ ডিসেম্বর মুরাদপুর থেকে চকবাজার যাওয়ার সময় ব্যাগ থেকে ইসলামী ব্যাংক চকবাজার শাখার তিনটি চেক বই হারিয়ে যায়। অনেক খোঁজাখুঁজির পর চেকগুলো না পেয়ে ২৯ ডিসেম্বর কোতোয়ালি মডেল থানায় জিডি করি এবং ব্যাংক কর্তৃপক্ষকে লিখিত জানাই।

তিনি আরো বলেন, চেকগুলো কুড়িয়ে পান একরামুল হক নামের এক প্রতারক। তিনি আমার স্বাক্ষর জাল করে ৪০ লাখ টাকার একটি চেক নিজের অ্যাকাউন্টে জমা দেন। স্বাক্ষর না মেলায় চেকটি ডিজঅনার হয়। আমি তাকে চেকগুলো ফেরত দেয়ার অনুরোধ করলে তিনি প্রথমে ৪০ লাখ, এরপর ২০ লাখ, কখনো ১০ লাখ আবার কখনো পাঁচ লাখ টাকা দাবি করেন। টাকা না দিলে আমাকে মিথ্যা মামলাসহ বিভিন্নভাবে হেনস্তা করছেন।

ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী বলেন, ৭ জানুয়ারি আমি প্রতারক একরামুল হকের বিরুদ্ধে কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি মামলা দায়ের করেছি। আদালত তাকে হাজিরার নির্দেশ দিয়েছে। এরপর একরামুল আমাকে মামলা প্রত্যাহার না করলে দেশের বিভিন্ন জেলায় চেক ডিজঅনার মামলা দিয়ে হয়রানি করার হুমকি দিচ্ছেন।

ইসলামী ব্যাংকের চকবাজার শাখার ম্যানেজার মো. শাখাওয়াত হোসেন বলেন, আবাসন ব্যবসায়ী মোবারক হোসেন তার চেক বই হারানোর বিষয়টি আমাদের লিখিত জানিয়েছেন। আমরা প্রাতিষ্ঠানিক ব্যবস্থা নিয়েছি।

কুমিল্লা কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি মো. আনোয়ারুল হক জানান, চেক বই হারানো ও প্রতারণার ঘটনায় মামলা করেছেন ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী। আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর/এমআর