Alexa কুষ্টিয়ায় পাঁচ ব্যবসায়ীকে জরিমানা 

কুষ্টিয়ায় পাঁচ ব্যবসায়ীকে জরিমানা 

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ০০:৩৩ ২০ নভেম্বর ২০১৯  

ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

অতিরিক্ত দামে লবণ বিক্রয়ের অপরাধে কুষ্টিয়ায় পাঁচ ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ৬২ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। 

মঙ্গলবার রাতে এ জরিমানা আদায় করেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট ও কুষ্টিয়া সদরের ইউএনও জুবায়ের হোসেন চৌধুরী। 

এদিকে লবণ নিয়ে কোনো গুজব বা কারসাজি করলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন কুষ্টিয়ার ডিসি মো. আসলাম হোসেন এবং এসপি এস এম তানভীর আরাফাত। একই সঙ্গে কুষ্টিয়ার এসপির নির্দেশে লবণ নিয়ে গুজবের বিষয়ে জনসাধারণকে অবগতি করে মাইকিং করা হয়েছে। সে সঙ্গে এসপির নির্দেশে বাজার পরিদর্শন ও ক্রেতা-বিক্রেতাদের অতিরিক্ত দামে লবণ ক্রয়-বিক্রয় না করার জন্য সতর্ক করেন এএসপি (অপরাধ ও প্রশাসন) মোহাম্মদ মুস্তাফিজুর রহমান। 

জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকেও লবণের গুজব নিয়ে জনসাধারণকে সতর্ক করে মাইকিং করা হয়। মাইকিং করে জানানো হয়, দেশে প্রচুর পরিমাণে লবণ রয়েছে। লবণের কোনো ঘাটতি নেই। লবণের মজুদ-সরবরাহ স্বাভাবিক রয়েছে। লবণ অতিরিক্ত দামে ক্রয়-বিক্রয় করলে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

পৌর বাজারের বাঁধন স্টোরের মালিক বাবুল বিশ্বাস জানান, লবণের কোনো ঘাটতি নেই। লবণের দামও বৃদ্ধি পায়নি। ফ্রেস, কনফিডেন্স, এসিআই, মোল্লা সল্টসহ সব প্রকার লবণ ৩০ (ত্রিশ) টাকা কেজি দরে বিক্রয় করা হচ্ছে। এ দাম অনেক আগে থেকেই। 

তিনি আরো জানান, সন্ধ্যার পর থেকে লবণের চাহিদা তুলনামূলক বৃদ্ধি পায়। একজন ১০ কেজি লবণ ক্রয় করতে আসলে, তাকে দেয়া হয়নি। তাকে বলা হয়েছে আপনি তো ব্যবসায়ী নন, আপনি লবণ বাসায় খাবেন। হঠাৎ এত লবণ একসঙ্গে কেন ক্রয় করবেন। এক কেজি নিয়ে যান। শেষ হলে আবার কিনবেন। বাজারে লবণ প্রচুর আছে। লবণের দাম বৃদ্ধি পাওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই। 

বড় বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক নূর-উজ-জামান বিশ্বাস জনি জানান, লবণের ঘাটতির বিষয়টি গুজব। এ বিষয়ে তারা মিটিং করেছেন। বাজারে লবণের কোনো ঘাটতি নেই। লবণের দামও বৃদ্ধি পায়নি। একটি চক্র সরকারকে বিভ্রান্ত করার অপচেষ্টা করে গুজব রটিয়েছে। 

বড় বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মোকাররম হোসেন মোয়াজ্জেম জানান, বাজারে প্রচুর পরিমাণে লবণ রয়েছে। লবণের কোনো ঘাটতি নেই। লবণের দামও বৃদ্ধি পায়নি। লবণ নিয়ে কোনো ব্যবসায়ী কারসাজি করার চেষ্টা করলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 

কুষ্টিয়ার এসপি এস এম তানভীর আরাফাত জানান, লবণ নিয়ে গুজবের বিষয়ে জনসাধারণকে অবগতি করে মাইকিং করা হয়েছে। লবণ নিয়ে কোনো গুজব ছড়ানো হলে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 

কুষ্টিয়ার ডিসি মো. আসলাম হোসেন জানান, কুষ্টিয়া জেলায় লবণের কোনো ঘাটতি নেই। লবণ নিয়ে কোনো গুজব বা কারসাজি করলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 
 

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ