কলাপাড়ায় কিশোরীর মৃত্যু নিয়ে রহস্য

কলাপাড়ায় কিশোরীর মৃত্যু নিয়ে রহস্য

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ০৪:৫৮ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০   আপডেট: ০৪:৫৯ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ছবি: ডেইলি ‍বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি ‍বাংলাদেশ

কলাপাড়ায় এক কিশোরীর মৃত্যু নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। সোমবার দুপুরে মোসা. ফাহিমা নামে ওই কিশোরীর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

পরে তার মরদেহ কলাপাড়া হাসপাতাল থেকে পটুয়াখালী মর্গে পাঠানো হয়েছে। ফাহিমা উপজেলার মহিপুর থানার সদর ইউপির কোমরপুর গ্রামের আবদুর রহিম গাজীর মেয়ে। 

কলাপাড়া থানার এসআই সম্বিত রায় জানান, কলাপাড়া থানায় বিষয়টি অবহিত করলে বিকেলে হাসপাতালে গিয়ে মরদেহ থানায় আনা হয়। পরে সুরতহাল শেষে মরদেহ মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে মৃত্যুর আসল রহস্য জানা যাবে । 

কলাপাড়া হাসপাতালের চিকিৎসক ডা.সায়মা সুলতানা জানান, কিশোরীকে হাসপাতালে মৃত অবস্থায় আনা হয়। সে রক্তশূন্যতার কারণে মারা যেতে পারে। তবে অপমৃত্যুর কোনো আলামত পাওয়া যায়নি। 

তবে ওই কিশোরীর গলায় ফাঁসের চিহ্ন থাকা সত্যেও চিকিৎসক ডা. সায়মা সুলতানা তা না দেখেই রক্ত শুন্যতায় মারা যাওয়ার বক্তব্যে অনেকেই অভিযোগ করেছেন। এ ঘটনায় ওই কিশোরী পরিবার তার মৃত্যুর সঠিক কারণ গোপন করেছে বলে ধারণা করছেন স্থানীয়রা।  

এদিকে কিশোরীর বড়ভাই সোহাগ জানান, তিনি অসুস্থতার খবর পেয়ে বাড়িতে গিয়ে তার বোনকে কলাপাড়া হাসপাতালে নিয়ে এসেছেন। এছাড়া তিনি কিছুই জানেন না। 

এছাড়া কিশোরীর খালা মুঠোফোনে জানান, উপর থেকে ফাহিমার মা নিচে নামাতে গেলে সে পড়ে যায়। এ কথা বলেই তিনি ফোন কেটে দেন।

মহিপুর থানার ওসি (তদন্ত) মো.মাহবুবুর রহমান জানান, এ বিষয়ে মহিপুর থানায় কোনো অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর