করোনা সম্পর্কে জরুরি সব তথ্য জানাবে বুটেক্স শিক্ষার্থীর বট

করোনা সম্পর্কে জরুরি সব তথ্য জানাবে বুটেক্স শিক্ষার্থীর বট

বুটেক্স প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৬:২০ ৬ এপ্রিল ২০২০  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে জনমনে আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া এ ভাইরাসটি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্নভাবে গুজব ও ভ্রান্ত-ধারণা ছড়ানো হচ্ছে। গুজব ও ভ্রান্ত ধারণা দূর করে মানুষকে করোনাভাইরাসের সঠিক তথ্য-উপাত্ত জানাতে ও এ নিয়ে প্রয়োজনীয় সচেতনতা বৃদ্ধিতে ব্যতিক্রমী এক প্রয়াস চালিয়েছেন বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুটেক্স) শিক্ষার্থী।

বুটেক্সের ৪৬তম ব্যাচের এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (ইএসই) বিভাগের শিক্ষার্থী নূর-ঈ-হাসনাইন সারিখা তৈরি করছেন ‘সেভ বাংলাদেশ’ নামক মেসেঞ্জার চালিত বট। যার মাধ্যমে প্রয়োজনে যোগাযোগ করা যাবে চিকিৎসকদের সঙ্গেও ।

এছাড়া এ বটের মাধ্যমে খুব দ্রুত সময়ে জানা যাবে, আইইডিসিআর হটলাইন নাম্বার, করোনা বিশেষায়িত হাসপাতালের হটলাইন নাম্বার, নিজ নিজ জেলার পুলিশ-এনএসইউ এর নাম্বার, দেশে ১২টি করোনা টেস্টিং ল্যাবের স্থান ও ফোন নাম্বার, স্বাস্থ্য বাতায়নের হেল্পলাইন নাম্বার, করোনার বিভিন্ন উপসর্গ ও প্রতিরোধের তালিকা।

এসব তথ্য-উপাত্তের প্রেক্ষিতে আপনার নেয়া একটি পদক্ষেপই বাঁচাতে পারে প্রাণঘাতি এ ভাইরাস থেকে।

‘সেভ বাংলাদেশ’ বটের সার্বিক তত্ত্বাবধানে রয়েছেন বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষার্থী। এর মাধ্যমে জরুরি যেকোনো ধরনের প্রশ্নের উত্তর দিতে সঙ্গে রয়েছে ওয়ারিয়র্স টিম। ওয়ারিয়র্স টিমের সার্বক্ষনিক সহযোগিতায় রয়েছেন ঢাকা কমিউনিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বেশ কয়েকজন চিকিৎসক (ডা. তৌকিতুল আলম চয়ন, ডা. অমিত, ডা. জামাল চৌধুরী, ডা. আশরাফ) ও বিভিন্ন মেডিকেল কলেজে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থী।

যেভাবে কাজ করে এই বট


নিচের লিংকে https://www.facebook.com/Save-BB-101552441496702/ গেলে বটের হোম পেইজ পাওয়া যাবে। সেখানে মেসেজ অপশনে ক্লিক করলে আসবে বিভিন্ন অপশন আসবে। সেখান থেকে প্রয়োজনীয় অপশনটি ক্লিক করে জানা যাবে সঠিক তথ্য-উপাত্ত।

এ বিষয়ে সারিখা বলেন, বাংলাদেশে যখন প্রথম দিকে করোনাভাইরাস শনাক্ত করা হয়, তখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ছড়িয়ে পড়ে। এর ফলে সাধারণ জনগণের মাঝে অহেতুক আতঙ্ক বিরাজ করে। অথচ এখন পর্যন্ত করোনার একমাত্র ওষুধ  পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকা। এর সঙ্গে সচেতনতা অবলম্বন করা। এমন পরিস্থিতিতে যদি প্রয়োজনীয় সচেতনতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ না করা হয়, তবে এই মহামারি আমাদের দেশেও ঠেকানো কঠিন হয়ে পড়বে। তাই প্রয়োজনীয় নির্ভুল তথ্য যোগানের মাধ্যমে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে মূলত আমার এই প্রয়াস।

‘সেভ বাংলাদেশ’ বটটি সবার জন্য উন্মুক্ত কিনা এবং কিভাবে এটির মাধ্যমে ডাক্তারদের সঙ্গে  সরাসরি সাহায্য পাওয়া যাবে? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বর্হিবিশ্বের মতো বাংলাদেশে যাতে করোনাভাইরাস মহামারি আকার ধারণ করতে না পারে সেজন্য ‘আতঙ্ক নয় চাই সচেতনতা’ কথাটি মাথায় রেখে দেশের সবার জন্য এটি উন্মুক্ত করা হয়েছে। এ বটের মাধ্যমে আপনি ঢাকা কমিউনিটি কলেজ হাসপাতালের বেশ কয়েকজন ডাক্তারের সঙ্গে  আমাদের ওয়ারিয়র্স টিমের সহযোগিতায় যোগাযোগ করতে পারবেন।

করোনাভাইরাস দেশে ছড়াচ্ছে মূলত বিদেশ ফেরত প্রবাসীদের মাধ্যমে। হতে পারে আপনার এলাকায় এমন প্রবাসী আছেন যিনি গত এক মাসের মধ্যে দেশে ফিরেছেন অথচ কোয়ারেন্টাইন তথা গৃহবন্দি দশার নিয়ম পালন করছেন না এবং  হতেই পারে তিনি নিজের অজান্তেই করোনাভাইরাসের মতো ভয়াবহ জীবাণুটি নিয়ে ঘুরছেন। এ বটের হটলাইন নাম্বারের মাধ্যমে এমন বিদেশ ফেরত প্রবাসীর সন্ধান দিয়ে সাহায্য করতে পারবেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম