করোনা সচেতনতায় আওয়ামী লীগের লিফলেট বিতরণ 

করোনা সচেতনতায় আওয়ামী লীগের লিফলেট বিতরণ 

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১২:৫১ ১৩ মার্চ ২০২০   আপডেট: ১৩:১৫ ১৩ মার্চ ২০২০

লিফলেট বিতরণ করছেন ওবায়দুল কাদের। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

লিফলেট বিতরণ করছেন ওবায়দুল কাদের। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

সারাবিশ্বে করোনাভাইরাস মহামারী আকারে ধারণ করায় জনগণকে সচেতন করতে সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ করছে আওয়ামী লীগ। 

শুক্রবার ধানমন্ডির আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের নেতাকর্মীদের হাতে এ সচেতনামূলক লিফলেট তুলে দেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। 

এ সময় তিনি বলেন, করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করার জন্য শুধু লিফলেট বিতরণের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকবে না আওয়ামী লীগ। করোনা নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করেছে আওয়ামী লীগ। সারাদেশে করোনা নিয়ে সচেতনমূলক এ ক্যাম্পেইন অব্যাহত থাকবে।

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে আওয়ামী লীগের সচেতনামূলক লিফলেট। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

তিনি বলেন, বিএনপি  লুটপাটের জন্য ক্ষমতায় যাওয়ার চক্রান্ত করছে। তারা মুজিববর্ষ বাতিল করতে চেয়েছিল। এখন করোনা পরিস্থিতি নিয়ে সমালোচনা করছে। করোনাভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শুরু থেকে তার বক্তব্যে দেশবাসীকে সচেতন করছেন। এ বিষয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সার্বিক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে। বিমানবন্দর, নৌবন্দর ও স্থল বন্দরে পরীক্ষা-নিরীক্ষা জোরদার করা হয়েছে। ইতালিফেরত দুজনসহ মোট তিনজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন, তারা এখন পুরোপুরি সুস্থ। বিশ্বের প্রায় একশটির বেশি দেশে করোনা ছড়িয়েছে। সেক্ষেত্রে বাংলাদেশ অনেকটা বিপদমুক্ত। করোনাভাইরাস একটি বৈশ্বিক সংকট। এই পরিস্থিতিতে দেশবাসীকে ভীত না হয়ে সতর্ক থাকতে হবে।

কারোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সরকার উদাসীন- বিএনপির এমন অভিযোগ প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রথম থেকেই সরকার করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে। এজন্য মুজিববর্ষের মতো এতো বিশাল আয়োজনও স্থগিত করা হয়েছে। এটা কি আমাদের দলের বা পার্টির আদর্শগত বিষয় নয়। তারপরও বিএনপি এমন অভিযোগ হাস্যকর।

সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ করছেন ওবায়দুল কাদের। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

তিনি আরো বলেন, করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সরকারের কোন ত্রুটি আছে কি না, তা সাংবাদিকরাই জানে। প্রথমে কিছু কিছু যন্ত্রপাতির ঘাটতি ছিল। এখন সেই ঘাটতিও পূরণ হয়েছে। এখন আর কোন কিছুতেই ঘাটতি নেই। বিমানবন্দরে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবস্থান নেয়া হয়েছে।  

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল, অ্যাডভোকেট আফজাল হোসেন, মির্জা আজম, দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, প্রচার সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু আহমদ মন্নাফি, উত্তরের সভাপতি বজলুর রহমান, যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ, কৃষক লীগের সভাপতি সমির চন্দ চন্দ্র প্রমুখ।

ডেইলি বাংলাদেশ/জাআ/জেডআর