করোনা দুর্যোগে পুলিশের মানবতা 

করোনা দুর্যোগে পুলিশের মানবতা 

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২০:২০ ২৭ মার্চ ২০২০  

দরিদ্রদের সহায়তা দিচ্ছে পুলিশ-ডেইলি বাংলাদেশ

দরিদ্রদের সহায়তা দিচ্ছে পুলিশ-ডেইলি বাংলাদেশ

করোনাভাইরাসে কারণে দিনমজুর ও দৈনিক রোজগার প্রায় বন্ধের পথে নিম্ন আয়ের মানুষের। এই দুর্যোগ মুহূর্তে মানবতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় এসব নিম্ন আয়ের মানুষের মাঝে চাল, ডাল, আলু, তেল, সাবান ও পেঁয়াজ দিয়ে সহযোগিতা করেন কয়েকজন পুলিশ সদস্য।

রমনা জোনের পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) আব্দুল্লাহ হেল কাফি ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন, রমনা জোনের কয়েকজন উপ-পরিদর্শক ও পুলিশ সদস্যরা নিজেদের বেতনের টাকা থেকে নেয়া ব্যক্তিগত উদ্যোগে এই সেবা দিয়েছেন। মাঠে কাজ করার সময় আমরা বিভিন্ন নিম্ন আয়ের মানুষের সঙ্গে কথা বলেছি। সারা বিশ্বের সাম্প্রতিক এই বিভীষিকা নভেল করোনার (কোভিড-১৯) এই দুর্যোগ মুহূর্তে নিম্ন আয়ের মানুষ মানবেতর ভাবে দিন কাটাচ্ছে। এসব কারণে জনগণেকে সেবা দিতে সাধ্যমত চেষ্টা করছে পুলিশ। শতাধিক পরিবারের সদস্যদের এই সব খাবার দেয়া হয়।

তিনি আরো বলেন, বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ধানমন্ডি, হাজারীবাগ ও রাসেল স্কয়ার এলাকায় এ খাবার বিতরণ করা হয়। খাদ্যদ্রবের ১১০টি প্যাকেটে ৩ কেজি চাল, আধা কেজি ডাল, এক কেজি আলু, এক কেজি পেঁয়াজ, আধা লিটার তেল ও একটি সাবান দেয়া হয়। সবকিছু বন্ধ থাকায় নিম্ন আয়ের মানুষের রোজগার নেই বললেই চলে। তাই আমাদের এই ক্ষুদ্র প্রয়াস।

এ উদ্যোগের পরে অনেকেই সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিতে চাচ্ছেন। কিন্তু সব কিছু বন্ধ থাকায় অনেকেই বের হতে পারছেন না। তাই কেউ এমন সাহায্য করতে চাইলে স্থানীয় পুলিশের সহায়তা নিতে পারেন। এছাড়া সমাজের বিত্তবানদের এসব নিম্ন আয়ের মানুষদের সহায়তায় এগিয়ে আসার আহ্বান জানান রমনা জোনের পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) আব্দুল্লাহ হেল কাফি।

উল্লেখ্য, করোনাভাইসের এই পর্যন্ত পাঁচ লাখের বেশি মানুষ পুরো বিশ্বে আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ২৫ হাজারের বেশি। এরমধ্যে বাংলাদেশে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৮ জন। মারা গেছেন ৫ জন। আর সুস্থ হয়ে বাড়ি গেছেন ১১ জন। সরকার দেশবাসী ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত ঘরে থাকার আহ্বান জানিয়েছে। এতে নিম্ন আয়ের ও যারা দিনমুজুর করে দিনযাপন করেন সেসব মানুষ পড়েন বিপাকে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসবি/এমআরকে