করোনা আক্রান্ত দম্পতিকে তাড়াল স্বজনরা, ঠাঁই হলো মুরগির খামারে

করোনা আক্রান্ত দম্পতিকে তাড়াল স্বজনরা, ঠাঁই হলো মুরগির খামারে

শিবগঞ্জ (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২২:২৩ ২ জুন ২০২০   আপডেট: ০০:১৪ ৩ জুন ২০২০

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত দম্পতি মুরগির খামারে (লাল বৃত্ত চিহ্নিত)।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত দম্পতি মুরগির খামারে (লাল বৃত্ত চিহ্নিত)।

বিপদে কাছের মানুষগুলো কতটুকু দূরের হতে পারে তা হাড়ে হাড়ে টের পেয়েছেন গাজীপুরে পোশাক কারখানায় কর্মরত ইমন ও শামিমা দম্পতি। জীবনের কঠিন সময়ে শুধু নিজের বাড়িই নয়, গ্রাম থেকে তাদের দূর দূর করে তাড়িয়ে দেন স্বজনসহ গ্রামবাসীরা। নিরুপায় হয়ে অবশেষে পাশের ইউপির একটি পরিত্যক্ত মুরগির খামারে ঠাঁই নেন এ দম্পতি। 

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জের বিনোদপুরে হৃদয়বিদারক এ ঘটনা ঘটেছে। 

জানা যায়, গাজীপুর থেকে স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে নিজেদের বাড়িতে যান ইমন। স্বজনরা তাদের বাড়িতে উঠতে দেননি। এমনকি গ্রামবাসী মিলে গ্রাম থেকে তাড়িয়ে দেন তাদের। অবশেষে পাশের ইউপিতে থাকা একটি পরিত্যক্ত মুরগির খামারে আশ্রয় নেন তারা। সেখানে থেকে ২৭ মে উপসর্গ ছাড়াই করোনা পরীক্ষার নমুনা দেন। ২৮ মে তাদের শরীরে করোনা পজিটিভ আসে।

আবেগতাড়িত কণ্ঠে ইমন বলেন, আমার পরিবারের কাছ থেকে যে ব্যবহার পেয়েছি তা বুক ছিঁড়ে দেখাতে পারলে মনে শান্তি পেতাম। আমার মতো কোনো ভাই বা বোন যেন এমন অমানবিকতার শিকার না হয়। 

ইমনের স্ত্রী শামিমা বলেন, সবাই রিপোর্ট দেখতে চায়। চাইলেই তো আমাদের হাতে কেউ রিপোর্ট দেবে না। সেটা বুঝানো মুশকিল। 

বিনোদপুর ইউপির চেয়ারম্যান মো. এনামুল হক বলেন, করোনাভাইরাস ছড়ানোর শঙ্কায় তাদের বাড়িতে উঠতে দেয়া হয়নি। পরীক্ষা করার পর রিপোর্ট দেখেই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ