করোনায় ২৮ বছরের ভালোবাসা নির্মমতায় গড়াল!

করোনায় ২৮ বছরের ভালোবাসা নির্মমতায় গড়াল!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৮:৫৬ ১১ জুলাই ২০২০  

স্বামীকে ঘাড় ধাক্কা দিয়ে বের করা স্ত্রী। ছবি : জি নিউজ।

স্বামীকে ঘাড় ধাক্কা দিয়ে বের করা স্ত্রী। ছবি : জি নিউজ।

ভালোবেসেই সংসার যাত্রা। স্ত্রীর ইচ্ছাতেই স্বামী বেছে নেন ঘরজামাই হওয়ার মতো সিদ্ধান্ত। টানা ২৮ বছর ভালোবাসায় মোড়ানো ‘সুখী’ দাম্পত্য জীবন ছিল তাদের। তবে করোনাভাইরাসের তাণ্ডবে কর্মহীন স্বামীর সঙ্গে ভালোবাসায় চিড় ধরান স্ত্রী-তার মেয়ে। সংসারে অর্থ যোগান দিতে না পারায় মেয়ের সম্মতিতে স্বামীকে ঘাড় ধাক্কা দিয়ে বাড়ি থেকে বের করে দেন স্ত্রী।

শনিবার এমন মর্মান্তিক খবর প্রকাশ করেছে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম জি নিউজ। ওই সংবাদ মাধ্যম জানায়, ভারতের চন্দননগরের বেনেপুকুরের বাসিন্দা শেখ মোহাম্মদ হাসিমের কাছে বদলে গেছে ভালোবাসা। বদলে গেছে সুখী দাম্পত্য জীবনের সংজ্ঞা।

১৯৯২ সালে ফটকগোড়ার বাসিন্দা গোপা চক্রবর্তীকে বিয়ে করেছিলেন তিনি। বিয়ের পর থেকে ঘরজামাই হিসেবে থাকতেন। স্ত্রী, তার মা ও নিজের মেয়েসহ সুখের সংসার ছিল তার। চন্দননগর স্টেশন রোডে অটো চালাতেন শেখ মোহাম্মদ হাসিম। কিন্তু দেশজুড়ে লকডাউনে আয় রোজগার বন্ধ হয়ে পড়ে। সংসার চালানোর টাকা দিতে না পারায় বাড়ি থেকে বের করে দিলেন স্ত্রী ও মেয়ে। পরে বেশ কয়েকদিন সড়কে এলোমেলোভাবে জীবন কাটান তিনি।

মোহাম্মদ হাসিমের এলোমেলো চলাফেরা দেখে এগিয়ে আসে স্থানীয় ক্লাবের সদস্যরা। তাকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয় তারা। এমনকি জামা-কাপড় কিনে দেয়।

শেখ হাসিমের ভাষ্য, এতদিন টাকা দিতে পারায় সংসার সুখের ছিল। এখন টাকা নেই, ঘরবাড়িও নেই।

স্বামীকে ঘর থেকে বের করে দেয়ার কথা স্বীকার করে গোপা চক্রবর্তী জানান, স্বামীকে রোজগার করতে হবে। বাড়ির বউ রান্না করবে আর স্বামী ঘরে টাকা আনবে। রোজগার না করতে পারলে তার পথ দেখে নিতে পারে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ