করোনাভাইরাস: এবার অবরুদ্ধ স্পেন

করোনাভাইরাস: এবার অবরুদ্ধ স্পেন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১০:৫২ ১৫ মার্চ ২০২০  

রাস্তায় সাধারণ মানুষের চলাচল তদারকি করছে কর্তৃপক্ষ

রাস্তায় সাধারণ মানুষের চলাচল তদারকি করছে কর্তৃপক্ষ

করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে এবার ইউরোপের দেশ স্পেনকে অবরুদ্ধ করেছে দেশটির সরকার। এছাড়া অতি প্রয়োজনীয় কাজ ব্যতীত রাস্তায় চলাচলেও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। 

শনিবার করোনার ব্যাপক সংক্রমণ রোধে দেশটির প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো স্যানচেজ এ নিষেধাজ্ঞাগুলোর ঘোষণা দেন। প্রায় সাত ঘণ্টা ধরে মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর এক টেলিভিশন ভাষণে তিনি বলেন, রাস্তায় চলাচলে সবার নিষেধাজ্ঞা আজ থেকেই কার্যকর করা হবে। এ ব্যবস্থা সবাইকে অনুসরণ করতে হবে। 

একইদিনে দেশটির সরকার সতর্কতার কারণে আনুষ্ঠানিকভাবে ১৫ দিনের রাষ্ট্রীয় জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেন। এ ব্যবস্থাটি তারই একটি অংশ বলে জানানো হয়। শুধুমাত্র ডাক্তারের সঙ্গে সাক্ষাৎ, প্রয়োজনীয় সামগ্রী কেনা ও অফিসে যাওয়া ছাড়া ঘর থেকে বের হওয়া যাবে না সেখানে।

প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো বলেন, দেশের জনগণ তাদের অফিসে যেতে পারবে, ফার্মেসিতে যেতে পারবে, চিকিৎসার উদ্দেশ্যে হাসপাতালে যেতে পারবে। তবে তারা কারো বাড়িতে কোনো আমন্ত্রণে অথবা কোনো সামাজিক সমাবেশে যেতে পারবে না।

এছাড়া ভাষণে আরো জানানো হয়, সুপারমার্কেট ব্যতীত দেশের অন্য সব দোকান বা ষ্টোর বব্ধ করে দেয়া হবে। দেশটির সব বার, থিয়েটার, সুইমিং পুল, রেস্টুরেন্ট, ফুটবল মাঠ, পার্ক ও সব ধরণের খেলাধুলার স্থানগুলোও বন্ধ করে দেয়া হবে।

পেদ্রো আরো বলেন, এই পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আমরা পুনরায় আমাদের পূর্বের রুটিনে ফিরে যাবো। করোনার প্রকোপ কমলেই আমরা আবার আমাদের বন্ধু ও প্রিয়জনদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবো। তবে সে সময় না আসা পর্যন্ত এখন সবাই নিজ নিজ বাড়িতে অবস্থান করুন। 

রোববার পর্যন্ত স্পেনে এ ভাইরাসে প্রায় ৬ হাজার ৩৯১ জন আক্রান্ত হয়েছেন এবং মৃত্যু হয়েছে ১৯৬ জনের। আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৫১৭ জন। ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে ইতালির পরে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ আক্রান্তের সংখ্যা রয়েছে স্পেনে।

বিশ্বজুড়ে প্রায় ১৫২টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। বিশ্বব্যাপী এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় এক লাখ ৫৬ হাজার ৭৩০ জন। এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বব্যাপী মৃত্যু হয়েছে ৫ হাজার ৮৩৯ জনের। এছাড়া এখন পর্যন্ত ৭৫ হাজার ৯৩৪ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

সূত্র- এনডিটিভি, রয়টার্স

ডেইলি বাংলাদেশ/এসএমএফ