করোনাভাইরাসে বেসামাল দক্ষিণ কোরিয়া

করোনাভাইরাসে বেসামাল দক্ষিণ কোরিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৭:১০ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

চীনের পর এখন দক্ষিণ কোরিয়ায় করোনাভাইরাসের আতঙ্ক প্রকট আকার ধারণ করছে। দেশটিতে নতুন করে আরো ১৬৯ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি নিশ্চিত হওয়া গিয়েছে।

দেশটির স্বাস্থ্য বিভাগের একজন মন্ত্রী কিম গ্যাং-লিপ বলেছেন, এখন পযর্ন্ত দেশটিতে অন্তত এক হাজার ১৪৬ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। মারা গেছে ১১ জন। যার ফলে দেশটিতে পরিস্থিতি অনেকটা গুরুতর পর্যায়ে মোড় নিয়েছে।

জানা গেছে, চীনে যেমন উহান শহরকে করোনাভাইরাসের উৎপত্তিস্থল হিসেবে দেখা হচ্ছে, দক্ষিণ কোরিয়ার ক্ষেত্রেও তেমনি দক্ষিণাঞ্চলীয় পাশাপাশি দুটো শহর দেগু এবং চোংডোকে ভাইরাস ছড়ানোর সূত্র হিসেবে দেখচ্ছে। যার ফলে সন্দেহের তীর গিয়ে পড়েছে ঐ অঞ্চলের শিনচিওঞ্জি নামে ক্ষুদ্র একটি খ্রিষ্টান সম্প্রদায়ের দিকে।

বলা হচ্ছে দেগু এবং চোংডোতে এই ধর্মীয় গোষ্ঠীর কয়েকশ সদস্য ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার উপসর্গের কথা জানানোর পরই তাদের অনেকের শরীরেই প্রথম করোনাভাইরাস পাওয়া যায়। তারপর থেকে নতুন করে ভাইরাস আক্রান্তের যেসব রোগী মিলছে তাদের সিংহভাগই চোংডো শহরের দেনাম নামের একটি হাসপাতালে। এই একটি হাসপাতালেই এখন পর্যন্ত ১১৪ জনের শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া গেছে।

এরইমধ্যে প্রাণঘাতী ভাইরাসটি ইউরোপ, মধ্যপ্রাচ্যসহ বিশ্বের অন্যান্য অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়ছে। তবে চীনের কিছু অংশ তাদের জরুরী প্রতিক্রিয়া কমিয়ে আনতে শুরু করছে। কারণ চীনে করোনাভাইরাসে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা ধীরে ধীরে কমছে।

উল্লেখ্য, গত ৩১ ডিসেম্বর চীনের মধ্যাঞ্চলীয় হুবেই প্রদেশের উহানে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের উপস্থিতি নিশ্চিত করা হয়। এরপর থেকে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে এ ভাইরাসে আন্ততদের মৃত্যুর সংখ্যা। প্রতিদিন মৃতের সংখ্যা তার আগের দিনকে ছাড়িয়ে যাচ্ছে। মঙ্গলবার পযর্ন্ত এ ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২ হাজার ৭৬৪ জনে দাঁড়িয়েছে। আক্রান্ত হয়েছেন ৮০ হাজারেরও বেশি মানুষ।

সূত্র: আল জাজিরা

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএএইচ