করোনা দুর্যোগেও পাশে নেই লক্ষ্মীপুর বিএনপি

করোনা দুর্যোগেও পাশে নেই লক্ষ্মীপুর বিএনপি

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:৫৯ ৩ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১৫:৩৪ ৩ আগস্ট ২০২০

গ্রাফিক্স: ডেইলি বাংলাদেশ

গ্রাফিক্স: ডেইলি বাংলাদেশ

চলমান করোনাভাইসরাস দুর্যোগে লক্ষ্মীপুরে মানুষের পাশে দাঁড়ায়নি বিএনপি। দলের নেতারা সচেতনতামূলক কার্যক্রম, প্রচার-প্রচারণা এবং খাদ্য সহায়তা নিয়ে জনগণের কাছে যায়নি। যদিও জেলা প্রশাসন ও স্থানীয় আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে দলমত নির্বিশেষে সামর্থবানদের জনগণের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানানো হয়। এতে সাড়া দেয়নি বিএনপি নেতারা। 

দলটির নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, লক্ষ্মীপুর জেলার চারটি সংসদীয় আসনের সাবেক চারজন প্রভাবশালী এমপি রয়েছে। তারা হলেন- লক্ষ্মীপুর-১ (রামগঞ্জ) আসনের নাজিম উদ্দিন আহমেদ, লক্ষ্মীপুর-২ (সদর ও রায়পুরের একাংশ) আসনের আবুল খায়ের ভূঁইয়া, লক্ষ্মীপুর-৩ (সদর) আসনের শহীদ উদ্দিন চৌধুরী ত্র্যানী, লক্ষ্মীপুর-৪ (রামগতি ও কমলনগর) আসনের এ বি এম আশরাফ উদ্দিন নিজাম। সাবেক এই চার এমপি জেলা ও উপজেলা বিএনপির নীতি নির্ধারক। করোনার শুরু থেকে তারা ঢাকায় অবস্থান করছেন। এছাড়া বিএনপি নেতাদের নিষ্ক্রিয়তার কারণে জেলা,  উপজেলা পর্যায়ের যুবদল ও ছাত্রদলের নেতারাও হাত-পা ঘুটিয়ে ঘরে বসে রয়েছে।  
 
লক্ষ্মীপুরে প্রায় দেড় বছরের মতো বিএনপির জেলা কমিটি নেই। জানা গেছে, লক্ষ্মীপুর জেলা বিএনপির মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়। ২০১৯ সালের ৯ মার্চ রাতে কেন্দ্রীয় বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে কমিটিটি বিলুপ্ত করেন। তখন বলা হয়েছিলো, ৩০ এপ্রিলের মধ্যে আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হবে। এরমধ্যে প্রায় দেড় বছর কেটে গেছে।

লক্ষ্মীপুর সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র জানায়, জেলার রামগঞ্জে ১২ এপ্রিল প্রথম করোনাভাইরাসে সংক্রমিত এক ব্যক্তি শনাক্ত হয়। এরপর এখন পর্যন্ত এ জেলায় দেড় হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। এরমধ্যে রাজনীতিবিদ, চিকিৎসক, পুলিশ, সাংবাদিক, জনপ্রতিনিধিও রয়েছে। যদিও আক্রান্ত একহাজার রোগী এরইমধ্যে সুস্থ হয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছেন।

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সবুজ বাংলাদেশের সভাপতি শাহীন আলম বলেন, প্রশাসনের পাশাপাশি ব্যক্তি উদ্যোগে অনেকেই করোনার শুরু থেকে মাঠে কাজ করছেন। তারা সচেতনতামূলক লিফলেট, মাস্ক বিতরণ, জীবাণুমুক্ত রাখতে স্প্রেকরণ, অসহায়দের অর্থ ও খাদ্য সহায়তা দিয়েছেন। কিন্তু বিএনপি নেতারা মানুষের এ বিপদের সময় যেন পালিয়ে রয়েছে। তাদের জনগণ পাশে পাচ্ছে না। 

এ ব্যাপারে বিলুপ্ত কমিটি জেলা বিএনপির সভাপতি ও লক্ষ্মীপুর-২ আসনের সাবেক এমপি আবুল খায়ের ভূঁইয়া বলেন, আমরা সাংগঠনিকভাবে এখন কোণঠাসা। সামর্থ অনুযায়ী এলাকার মধ্যে আমাদের নেতাকর্মীরা জনগণকে সাহায্য-সহযোগিতা করছেন। করোনার কারণে আমরা মাঠে যেতে পারেনি তা সত্য। তবে আমরা (বিএনপি) সব দুর্যোগে মানুষের পাশে থাকি।

জানতে চাইলে লক্ষ্মীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম ফারুক পিংকু বলেন, বিএনপি নেতারা এখন জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন। তাদের এখন দূরবীন দিয়েও দেখা যাচ্ছে না। সবসময় তারা লুটপাটে বিশ্বাসী। জনগণকে ভালোবাসলে এ দুর্যোগের সময় তারা জনগণের পাশে থাকতো। প্রশাসনের সঙ্গে সমন্বয় করে আমরা পর্যায়ক্রমে শ্রমজীবী ও মধ্যবিত্তদের ঘরে ঘরে ত্রাণ পৌঁছে দিয়েছি। এখনো আমাদের সাহায্য-সহযোগিতা অব্যাহত রয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআরকে/এইচএন