Alexa সরকারি ডাক্তারের চেম্বার যখন ‘কংক্রিটের রিং’

সরকারি ডাক্তারের চেম্বার যখন ‘কংক্রিটের রিং’

সোশ্যাল মিডিয়া ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৮:৩৩ ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আপডেট: ১৮:৪১ ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

নিজেকে প্রকাশের কিংবা জীবনে বেঁচে থাকার সবচেয়ে মহান পেশা, উৎকৃষ্ট পেশা হচ্ছে চিকিৎসাসেবা। মানুষের কাছে যাওয়া, তাদের সেবা করার যথেষ্ঠ সুযোগ আছে এই পেশায়। কিন্তু দুর্ভাগ্য হলেও সত্য যে, পত্র-পত্রিকায় এই পেশার ওপর যেসব খবর প্রকাশিত হচ্ছে, তা পড়ে গা শিউরে ওঠে। এতো অভিযোগের মাঝেও নীরবে কাজ করে যাওয়া একজন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের নাক, কান ও গলা রোগ বিভাগের অধ্যাপক ডা.মনজুরুল আলম।   

ডাক্তারদের ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যু। অপারেশন করেও রোগী সুস্থ হননি, বরং অবস্থার অবনতি, অপারেশনের পর রোগীর পেটে গজ-ব্যান্ডেজ এমনকি কাঁচি রেখেই সেলাই, রোগীর সঙ্গে ডাক্তারের দুর্ব্যবহার।

রাজপথে রোগীর স্বজনদের সঙ্গে এমনকি সংবাদ সংগ্রহের কারণে সাংবাদিকদের লাথি, ঘুষি- আমরা ইলেক্ট্রনিক প্রচার মাধ্যমে দেখেছি। সরকারি হাসপাতালে রোগীর সঙ্গে ডাক্তারের অপ্রত্যাশিত আচরণ তো আছেই।

কিন্ত এতো অভিযোগের মাঝেও নীরবে কাজ করে যাওয়া সাদা মনের মানুষদের জন্যেই হয়তো এই মহান পেশার প্রতি শ্রদ্ধা আর ভালোবাসা বেড়েই চলেছে। তেমনই একজন সাদা মনের মানুষ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের নাক, কান ও গলা রোগ বিভাগের অধ্যাপক ডা.মনজুরুল আলম।   

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কারণে অধ্যাপক ডা. মনজুরুল আলমের একটি ছবি ভাইরাল হয়েছে। যে ছবিতে দেখা যাচ্ছে, অধ্যাপক ডা. মনজুরুল আলম কংক্রিটের রিংয়ের ভেতরে বসে একজন শিশুকে পরীক্ষা করছেন। 

২৫ সেপ্টেম্বর সাদা এপ্রোন নামের ফেসবুক পেজ থেকে ছবিটি শেয়ার করা হয় এবং সেখানে ক্যাপশন লেখা হয় ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের নাক, কান, গলারোগ বিভাগের অধ্যাপক ডা. মনজুরুল আলম স্যার। মুগদা এলাকার বস্তির বাচ্চাদের এভাবেই চিকিৎসা দিচ্ছেন…..

এসব নীরবে কাজ করে যাওয়া সাদা মনের মানুষদের জন্যেই এখনো টিকে আছে দুনিয়া। অনেকে ছবিটি শেয়ার করে ডা.মনজুরুল আলমের প্রশংসায় পঞ্চমুখ।

তবে, ছবিটি সম্পর্কে অধ্যাপক ডা. মনজুরুল আলমের বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।  

ডেইলি বাংলাদেশ/এমএইচ