ওবায়েদ আকাশ-এর কবিতা

ওবায়েদ আকাশ-এর কবিতা

কবিতা ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:৩৮ ৩১ মে ২০১৯  

অলঙ্করণ: আনিস মামুন

অলঙ্করণ: আনিস মামুন

প্রাণরোষ নেমে এলে

বুক পকেটের নিচে প্রতিদিন জমা করো 
ভাসমান আয়ু
কলমির ঝাড় পাড়ি দিয়ে টলটলে পুকুরের জলে
ডুব দিয়ে তোলো গভীর জীবন

পাখিরা পালকভরা আয়ু নিয়ে
বসে আছে রাত্রির মগডালে
তুমি পাখিদের হয়ে এমন আয়ুময় খেলায় 
দুহাতে সঞ্চয় শিখেছ শুধু-
জলজ জীবনে গভীর থেকে গভীরে চলায়
বৃথাই ঘষেছ কত পাথরে পাথর 
এমন নিস্তরঙ্গ জলে মহার্ঘ প্রস্তর ঠুকে
কে কবে আগুন জে¦লেছে বলো?

বুক পকেটের নিচে প্রাণরোষ নেমে এলে
আয়ুদের ভুখা মিছিলের শেষে
কে কখন বয়ে এনেছিল রুটি ও আমিষ!
***

তোমার জীবনী

আঁধার থেকে গলতে গলতে এখন
হিমাঙ্কের নিভৃতি বলে নিজেকে প্রমাণ করছ

ধাতব সত্যের মতো রহস্যময়তা
আর বিজ্ঞানের বিস্ময় সকাশে দাঁড়িয়ে 
বুঝিয়ে দিয়েছ তোমাকে ঘিরে যুগের পর যুগ
কতটা সময় গবেষণাগারে ফুরিয়ে গেছে পৃথিবীর

নিরন্তর টেট্রন বালিশের ধারে
কেটে কেটে রক্তাক্ত হচ্ছে ঘুমের কার্পাস
কোনো কোনো তন্দ্রাচ্ছন্ন মুখ আর কোনোদিন 
দেখবে না পৃথিবীর অবাক সুন্দর স্বরূপ

তবু ঘুম ভালবেসে মানুষ চারপাশ ঘিরে
দিনের পর দিন কেটে চলেছে সমুদ্র পরিখা
বুকের একান্ত কাছে আঁকড়ে ধরেছে
চিরকাল অবিশ্বস্ত আর অবিশ্বাস্য প্রগাঢ় অন্ধকারলিপি

আতাফলের গভীর অন্ধকার থেকে মা পাখির
ডানার বিশ্বস্ত ওমে হেঁটে হেঁটে কুড়িয়ে এনেছ
ঘুমের আকর। আর একদিন অন্ধকারের ব্যথিত হৃদয়ে
বেদনায় নীল হতে হতে ক্ষয়ে গেছ হিমাঙ্কের ওপার

অরণ্যের অঙ্কুরিত অন্ধকারে 
বাজপাখির ডানার শব্দের মতো তাই 
করুণ আখ্যানে বাজে তোমার জীবনী
*** 

স্বপ্নগুলো সব দালান

স্বপ্নের সমান উঁচু দালানের হাতে তোমার ভবিষ্যৎ

অথচ মধ্যরাতে দালান থেকে টুপটুপ করে ঝড়ে পড়া দীর্ঘশ্বাসে 
তোমার চারপাশ ঘিরে গড়ে উঠেছে অজস্র দালান

প্রতিদিন তুমি তাদের মাথায় হাত রাখো
চুমু দিয়ে স্বাস্থ্যবান করে হাতে হাতে তুলে দাও প্রজনন ভাষা

আবার তাদের মধ্যরাত ভারি হয়ে এলে
সম্মিলিত দীর্ঘশ্বাসে দাঁড়িয়ে যায় অগণ্য নিচ্ছিদ্র দালান

এবার স্বপ্নের ওপর পাড়া দিয়ে দিয়ে 
কী করে নদীতে স্নান করতে যাবে বলো?

তোমার স্বপ্নের শিশুরা জরাক্রান্ত হলে
পাখির গান, কাঁচা মাটির করুণা ব্যতীত 
কী করে তাদের শুশ্রুষা দেবে!

তোমার চারপাশ ঘিরে স্বপ্ন
উঁচু উঁচু অবয়বমুখর নিচ্ছিদ্র দালান-সভ্যতা!
***

মরশুম

প্রতিবেশিদের জন্য বরাদ্দকৃত ঘাটে
তোমার স্নানের পাঁয়তারা উপেক্ষিত-
যেভাবে আজকাল নদীদের স্রোতের ব্যর্থতা
বলা-কওয়াহীন প্রসিদ্ধ হয়ে চলেছে- 

যখন প্রণম্য শিল্পীর গড়া কলসির আল্পনা থেকে
নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়ে 
দীর্ঘ সমুদ্রব্যাপী লিখে দিয়েছিলে জলে ভেজা শরীরী ইশতেহার
সেই প্রথম কণ্ঠে তুলেছি ভাটিয়ালি আর
শীতরাত্রির জেলেদের ঘরে ফেরার মহৎ ব্যভিচার

প্লাবিত বর্ষার পেটে নদী ডুবে গেলে 
ভেসে আসা ছেঁড়া ছেঁড়া পানাফুল কচুরিফুল
জড়িয়ে ধরেছি কত! 
সুধাই সুধাই ওগো মর্মরিত ঢেউয়ের গুনগুন
কতদূর ভেসে গেলে জেগে ওঠে ঘাটেরা আমূল?
লোকালয়ে তৃষিত প্রেমিক, বলো কবে 
শুরু হবে তার দেহে স্নার মরশুম?

ডেইলি বাংলাদেশ/আরআর