Alexa ওজন কমাতে কখন, কিভাবে হাঁটবেন?

ওজন কমাতে কখন, কিভাবে হাঁটবেন?

স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ০৭:২৮ ১১ জুলাই ২০১৯   আপডেট: ০৭:২৯ ১১ জুলাই ২০১৯

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

ওজন কমাতে চাইলে ব্যায়াম বেশ কার্যকরী। আবার হাঁটার মাধ্যমেও ওজন কমানো সম্ভব। তবে তা নিয়মিত হলে। এর মধ্যে অনেকের অভিযোগ, এতে মোটেও ওজন কমে না। বিশেষজ্ঞদের মতে, সঠিক নিয়মে হাঁটলে ওজন কমতে বাধ্য। আর এর জন্য কিছু নিয়ম পালন করতে হবে। চলুন, সেগুলো দেখা যাক-

১. প্রতিদিন ১৫ হাজার পদক্ষেপ
স্মার্টব্যান্ড বা স্মার্টফোনের ফিটনেস ট্র্যাকার ব্যবহার করুন। 'ম্যাপমাইওয়াক' বা অন্যান্য অ্যাপের মাধ্যমে কয় পা হাঁটছেন তা গণনা করুন। ওজন কমাতে হলে নিয়মিত ১৫ হাজার পা এগিয়ে যেতে হবে। অনেক বেশি মনে হতে পারে। কিন্তু হাঁটতে গেলেই দেখবেন মোটেও কঠিন কাজ নয়। পা স্বাবলীলভাবে ফেলুন। এ পরিমাণ পদক্ষেপ নিতে তেমন ক্লান্তি আসবে না।

২. প্রতিদিন ৩ বার ২০ মিনিট করে
প্রতিদিন যেমন তিন বেলা খাওয়া হয়, ঠিক তেমনি তিন বেলা হাঁটতে হবে। এর জন্য কমপক্ষে ২০ মিনিট সময় বরাদ্দ রাখুন। এতে রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকবে। একটানা ৪৫ মিনিট হাঁটার চেয়ে ২০ মিনিট করে তিন বার হাঁটা অনেক বেশি উপকারী।

৩. ওপরের দিকে ওঠা
চড়াইয়ের দিকে হাঁটা স্বাভাবিকের চেয়ে কার্যকরী। এতে অবশ্য দ্রুত ক্লান্ত হয়ে যাবেন। হৃদস্পন্দন বেড়ে যাবে। পাহাড়ের ঢাল বেড়ে বা ওপরের দিকে উঠলে পেশিও সুগঠিত হবে। বিশেষজ্ঞের পরামর্শ, একটা সমানের দিকে ঝুঁকে ধীরে ধীরে চড়াইয়ের দিকে উঠুন।

৪. গ্রিন টি পান করুন
ক্যালোরি ঝরানোর জন্য গ্রিন টি মন্দ নয়! ক্যাফেইন এবং ক্যাটাচিন্সের সঠিক সমন্বয় ফ্যাট পোড়ানোর জন্য বেশ উপকারী। তাই হাঁটার পাশপাশি গ্রিন টি’তে চুমুক দিতেই পারেন।

৫. বিরতি
একঘেয়েমি কোনো কিছুই ভালো লাগে না। এছাড়া ব্যায়ামের ফাঁকে বিশ্রাম দরকার। তাই ৫ থেকে ১০ মিনটি হাঁটার পর এক মিনিটের বিরতি নিতে পারেন। এতে দেহে শক্তি ফিরে আসবে।

৬. ওজনের ব্যায়াম করুন
সামর্থ্য থাকলে কিছু ওজন তোলার ব্যায়াম করুন। এতে দেহ বাড়তি শক্তি পাবে। আরো বেশি বেশি হাঁটতে পারবেন। পারলে কিছু বাড়তি ব্যায়ামও করতে পারেন।

৭. চিনিপূর্ণ পানীয় ত্যাগ
অনেকেই মনে করেন, চিনিপূর্ণ পানীয় দেহে বাড়তি শক্তি দেয়। তাই ব্যায়ামের আগে বা পরে খাওয়া দরকার। দুঃখজনক হলেও সত্য যে, মধ্যম মানের ব্যায়ামে এসব পানীয় দরকার নেই। যদি গ্রহণ করেন তো রক্ত গ্লুকোজের পরিমাণ বৃদ্ধি পাবে।

৮. পানি পান
পানি পর্যাপ্ত পরিমাণে খেতে হবে। এতে ওজন হ্রাসের প্রক্রিয়া দ্রুত হবে। প্রতিদিন ১.৫ লিটার পানি পান করলে বছরে ১৭৪০০ ক্যালোরি পুড়বে। 

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর