Alexa একাদশে না থেকেও যে কারণে পিঙ্ক টেস্টে ব্যাট হাতে `বোলার` মিরাজ

একাদশে না থেকেও যে কারণে পিঙ্ক টেস্টে ব্যাট হাতে `বোলার` মিরাজ

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৬:৩৬ ২২ নভেম্বর ২০১৯   আপডেট: ২১:২১ ২২ নভেম্বর ২০১৯

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

ভারতের বিপক্ষে নিজেদের ইতিহাসের প্রথম গোলাপি টেস্টে মঠে নেমেছে বাংলাদেশ। তবে এ ম্যাচের শুরুটা মোটেও সুখকর নয় টাইগারদের জন্য। এর মাঝেই দেখা গেলো অন্যরকম ঘটনা। শুরুতে মূল একাদশে ছিলেন না মেহেদি মিরাজ। তবে ব্যাট হাতে নামেন তিনি। যা দেখে অবাক হয়েছেন অনেকেই। 

বাংলাদেশের ইনিংসের ২১তম ওভারে মোহাম্মদ শামীর বলে হেলমেটে আঘাত পান লিটন দাস। প্রথমে আঘাতটি অতটা গুরুতর মনে না হলেও ধীরে ধীরে অস্বস্তি ভোগ করতে থাকেন লিটন দাস। তাই ইনিংসটি আর চালিয়ে যেতে পারেননি তিনি। ঠিক লাঞ্চের সময়টিতে রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান তিনি।

আইসিসির নতুন নিয়ম অনুযায়ী লিটন দাসের কনকাশন সাবস্টিটিউট প্লেয়ার হিসেবে লাঞ্চের পর মাঠে প্রবেশ করেন মেহেদি হাসান মিরাজ। তবে মেহেদি এই ম্যাচে শুধু ব্যাটই করতে পারবেন বোলিং করতে পারবেন না! কেননা লিটন দাস মূলত একজন ব্যাটসম্যান!

জুলাই মাসে আইসিসির বৈঠকে ‘কনকাশন’ সাবস্টিটিউট সংক্রান্ত নিয়ম চালু করার বিষয়টি পাশ হয়। অ্যাসেজ সিরিজ থেকে এই নিয়ম আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে চালু হয়েছে।

মাথায় আঘাতজনিত কারণে খেলোয়াড় পরিবর্তনের দাবি প্রথম ওঠে ২০১৪ সালে অস্ট্রেলিয়ায় ফিল হিউজের মৃত্যুর পর। মাথায় আঘাত লেগে তাঁর মৃত্যুর পর অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট বোর্ড পুরুষ ও মহিলাদের ডোমেস্টিক ক্রিকেট ও বিগব্যাশে এই ‘কনকাশন’ সাবস্টিটিউট নিয়ম চালু করে (২০১৬-১৭ মৌসুম থেকে)। এরপর শেফিল্ড শিল্ডেও এই নিয়ম চালু করা হয়। 

আইসিসির তরফ থেকে সেই বৈঠকের পর এক বিবৃতিতে জানানো হয়, ‘কোনও ম্যাচ চলাকালীন মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত খেলোয়াড় পরিবর্তন করা যাবে। তবে এই সিদ্ধান্ত চিকিৎসকের রিপোর্টের ওপর ভিত্তি করে নিতে হবে এবং একই ধরণের খেলোয়াড় পরিবর্তন করা যাবে (অর্থাৎ ব্যাটসম্যানের বদলে ব্যাটসম্যান বা বোলারের বদলে বোলার)। এই পরিবর্তন ম্যাচ রেফারি অনুমোদন করবেন।’

উল্লেখ্য,টেস্টে ‘কনকাশন’ সাবস্টিটিউট নিয়ম চালু হওয়ার পর প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে অ্যাসেজ টেস্টে স্টিভ স্মিথের বদলে সাবস্টিটিউট হিসেবে খেলেছিলেন মার্নাস লাবুশেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএল