উইম্বলডন বাতিলে টেনিস তারকাদের হতাশা

উইম্বলডন বাতিলে টেনিস তারকাদের হতাশা

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৯:০৮ ২ এপ্রিল ২০২০   আপডেট: ২১:৪৬ ২ এপ্রিল ২০২০

উইম্বলডন বাতিলে হতাশ হয়েছেন টেনিস তারকারা -ফাইল ফটো

উইম্বলডন বাতিলে হতাশ হয়েছেন টেনিস তারকারা -ফাইল ফটো

মরণঘাতী করোনাভাইরাসের কারণে অচল বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গন। একের পর এক বাতিল হচ্ছে আন্তর্জাতিক আসর। এবার বাতিল হলো চলতি মৌসুমের উইম্বলডন টেনিস। আর এতে হতাশ হয়েছেন টেনিস তারকারা।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজেদের হতাশা তুলে ধরেছেন টেনিস তারকারা।

২০টি গ্র্যান্ডস্ল্যাম জয়ী সুইস তারকা রজার ফেদেরার টুইটারে লিখেছেন, ‘হতাশ-বিধ্বস্ত লাগছে।’

১৯টি গ্র্যান্ডস্ল্যামের মালিক স্পেনের রাফায়েল নাদাল বলেন, ‘আমরা এখন পরিস্থিতির শিকার। এটি বাতিল হওয়াটা আমাদের জন্য দুঃখজনক।’

২৩টি গ্র্যান্ডস্ল্যাম জিতেছেন যুক্তরাষ্ট্রের সেরেনা উইলিয়ামস। তার কন্ঠেও হতাশা। সেরেনা টুইট করেছেন ‘এমন খবর শুনে আমি হতাশ। এই হতাশা সহজে মুছে যাবে না।’

গত বারের চ্যাম্পিয়ন হালেপের প্রতিক্রিয়া ছিলো এমন, ‘উইম্বলডন এ বার আয়োজিত হবে না শুনে খুব খারাপ লাগছে। গত বারের ফাইনালটা আমার জীবনের অন্যতম আনন্দের মুহূর্ত হয়ে থাকবে। কিন্তু এই মুহূর্তে আমরা টেনিসের থেকে  আরো বড় একটা লড়াই করছি। উইম্বলডন আবারো ফিরবে। আমাকে খেতাব রক্ষার লড়াইয়ে নামার জন্য আরো কিছু দিন অপেক্ষা করতে হবে।’

দু’বারের চ্যাম্পিয়ন পেত্রা কিতোভাও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লিখেছেন, ‘এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া সহজ ছিল না। উইম্বলডন আমার কাছে শুধু বিশেষ একটা প্রতিযোগিতাই নয়, ইতিহাসের অংশও। তবে সবার আগে সকলের নিরাপত্তা। সবাই, বাড়িতে থাকুন, সুস্থ থাকুন।’

ভারতীয় টেনিস তারকা সানিয়া মির্জাও টুইটারে নিজের অভিমত তুলে ধরেছেন, ‘খুবই খারাপ লাগছে প্রতিযোগিতাটি বাতিল হয়ে যাওয়ায়।’

তবে তিনবারের উইম্বলডন চ্যাম্পিয়ন সাবেক জার্মান টেনিস তারকা বরিস বেকার উইম্বলডন বাতিলের আগে এ মাসটি পর্যবেক্ষনের আহ্বান জানিয়েছিলেন।  তিনি বলেছিলেন, ‘আমি সত্যিই মনে করি এপ্রিল মাস শেষ হওয়ার আগ পর্যন্ত উইম্বলডনের ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া ঠিক হবে না। ধৈর্য্যের ফল মধুর হয়, এটা আমরা সবাই জানি।’

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএস