ঈদগাহে যাওয়ার আগেই যে হক আদায় করা জরুরি

ঈদগাহে যাওয়ার আগেই যে হক আদায় করা জরুরি

গাজী মো. রুম্মান ওয়াহেদ ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:০৮ ২৪ মে ২০২০   আপডেট: ১৪:১১ ২৪ মে ২০২০

প্রিয় নবী রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, ‘ফিতরা আদায় করার আগ পর্যন্ত রোজা আসমান ও জমিনের মাঝে ঝুলন্ত অবস্থায় থাকে।’

প্রিয় নবী রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, ‘ফিতরা আদায় করার আগ পর্যন্ত রোজা আসমান ও জমিনের মাঝে ঝুলন্ত অবস্থায় থাকে।’

পবিত্র রমজান মাসের রোজার ফিতরা গরিবের হক। ঈদগাহে যাওয়ার আগেই তা আদায় করা জরুরি। 

প্রিয় নবী রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, ‘ফিতরা আদায় করার আগ পর্যন্ত রোজা আসমান ও জমিনের মাঝে ঝুলন্ত অবস্থায় থাকে।’ সুতরাং ঈদগাহে যাওয়ার আগেই গরিবের উক্ত হকটি আদায় করা আবশ্যক।

ফিতরা:

সম্পদের মালিক স্বাধীন-পরাধীন নারী-পুরুষ দায়িত্বশীল পরিবারের ছোট-বড় সবার পক্ষ থেকে ঈদগাহে যাওয়ার আগেই ফিতরা আদায় করবেন। সাধারণত এ ফিতরা রমজানের শেষ দিনগুলোতে কিংবা ঈদের চাঁদ ওঠার পর থেকেই রাতে ও সকালে আদায় করা হয়। কেউ কেউ ঈদের দিন ঈদের নামাজের আগে ফিতরা আদায় করে থাকেন।

ফিতরা রোজার ভুল-ত্রুটির সংশোধন, সিয়াম সাধনায় সুন্দরভাবে রোজা পালনের কৃতজ্ঞতায় এ ফিতরা আদায় করে মুমিন মুসলমান। কেননা এ ফিতরা গরিব-অসহায়দের অধিকার।

সুতরাং আপনজনদের মধ্য থেকে কিংবা প্রতিবেশীর মধ্য থেকে প্রকৃত দরিদ্রদের খুঁজে বের করে তাদের হাতে ফিতরার মূল্য দিতে হবে। আপনজন ও প্রতিবেশীদের মধ্যে ফিতরা বিতরণ করা উত্তম। যাতে করে এলাকার প্রকৃত দরিদ্ররা সেখানকার ধনীদের দ্বারা উপকৃত হতে পারে।

উল্লেখ্য অঞ্চলভেদে ফিতরা ও ফিদইয়ার অর্থ ভিন্ন হতে পারে। এ বছর ইসলামিক ফাউন্ডেশন ফিতরার ৫ পণ্যের মূল্য নির্ধারণ করেছে। সর্ব নিম্ন গম/আটায় ৭০ টাকা, যব দিয়ে ২৭০ টাকা, কিসমিস দিয়ে ১ হাজার ৫০০ টাকা, খেজুর দিয়ে ১ হাজার ৬৫০ টাকা আর পনির দিয়ে সর্বোচ্চ ২ হাজার ২০০ টাকা। এ ছাড়াও সামর্থ্য অনুযায়ী আরও উন্নতমানের এসব পণ্যের দ্বারাও ফিতরা আদায় করা যেতে পারে।

মহান রাব্বুল আলামিন আল্লাহ তায়ালা মুসলিম উম্মাহকে যথাসময়ে যথাযথভাবে গরিবরে অধিকার ফিতরা আদায় করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএজে