Alexa ইরানে যা আছে দেখার মতো

ইরানে যা আছে দেখার মতো

ভ্রমণ ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১২:১০ ৫ জানুয়ারি ২০২০  

শিরাজ

শিরাজ

হাজার বছরের পুরনো ইতিহাস, সংস্কৃতি আর অসাধারণ প্রকৃতির দেখা মেলে ইরানে। দেশটি পৃথিবীর অন্যতম সুন্দর, আকর্ষণীয়, মনমুগ্ধকর, প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন ও দর্শনীয় স্থানে পরিপূর্ণ। ফলে ভ্রমণপিপাসু, পর্যটক ও প্রত্নতাত্ত্বিকদের কাছে ইরানের বেশ কিছু শহর অনন্য স্থান দখল করে নিয়েছে। ইরানের অবস্থা এখন বেশ থমথমে। তবে পরিবেশ শান্ত হলেই ঘুরে আসতে পারেন। ইরানের দর্শনীয় স্থানের শীর্ষে থাকা এমন কিছু শহর সম্পর্কে জেনে নিতে পারেন-

শিরাজ

ইরানের অন্যতম সুন্দর, ঐতিহিাসিক ও জনবহুল শহর শিরাজ। ‘ইরানের এথেন্স’ বলা হয়ে থাকে এই শহরকে। প্রায় ২৫০০ বছর পূর্বে শিরাজ রাজধানী হওয়ার গৌরব অর্জন করে। শিরাজ ইরানের পঞ্চম জনবহুল শহর এবং র্ফাস প্রদেশের রাজধানী। পর্যটনের নগরী হিসেবেও ভ্রমণপিপাসুদের কাছে শহরটি অতুলনীয়। দাস্তে আরযান, ভালকী মসজিদ, বিখ্যাত মনুমেন্ট সাইরাস দ্য গ্রেট, এরাম গার্ডেন, নাসিরুল–মুলক মসজিদ ইত্যাদি চমকপ্রদ সব স্থাপনা রয়েছে এই শহরে। এছাড়াও মহাকবি হাফিজ ও জগৎবিখ্যাত শেখ সাদীর কবর দেখতে আপনাকে ছুটে যেতে হবে শিরাজে।

লুট মরুভূমি

লুট মরুভূমি

ইরানের ডাস্ত-ই লুট মরুভূমি প্রায় ২০০ মাইল এলাকা বিশ্বের সবচেয়ে শুষ্ক ও উষ্ণ স্থান হিসেবে বিবেচিত। এ অঞ্চলে জীবনধারণের জন্য এত বিরূপ পরিস্থিতি রয়েছে যে, এখানে কেউ বসবাস করতে পারে না। এমনকি ব্যাকটেরিয়াও এ অঞ্চলে বাস করতে পারে না। মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থার মতে, এ অঞ্চলের তাপমাত্রা ১৫৯.৩ ডিগ্রি পর্যন্ত উঠতে দেখা গেছে। এখানে দেখতে পাবেন বেশকিছু সারিবদ্ধ ক্ষয়প্রাপ্ত টাওয়ার ও দেয়াল; মরুভূমির মাঝে এমন স্তম্ভগুলো আপনাকে আরো অনেক বেশি রোমাঞ্চিত করে তুলবে।

কাশান

কাশান

ইরানের ইসফাহান প্রদেশের অন্যতম প্রসিদ্ধ শহর কাশান। এটি কাচান নামেও অভিহিত। এই শহর দুটি বড় পাহাড়ের পাদদেশে অবস্থিত। এরমধ্যে ‘মাউন্ট আরদেহাল’ ইরানের সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গের অন্যতম। এই শহরের বড় অংশজুড়ে রয়েছে মারানযাব ও দাসতে কাবীরের মতো মরুভূমি। যেখানে হেঁটেই আপনি খুব সহজেই সূর্য উদয় দেখতে পারবেন। কাশানের দর্শনীয় স্থানের মধ্যে রয়েছে আগা বুযুর্গ মসজিদ, আমেরী হাউজ, জালালী কটেজ, বোরুযারদী হাউজ, আব্বাসী হাউজ, তাবাতাবায়ী হাউজ, আত্তারী হাউজ, ৪০ দুখতারান দুর্গ, তাবরিজিয়া মসজিদ প্রভৃতি।

এসফাহন

এসফাহন

ইরানের অন্যতম জনবহুল নগরী এসফাহন। এ শহর তেহরান থেকে ৩৪০ কিলোমিটার দক্ষিণে অবস্থিত। এটি শুধু ইরানেরই নয় বরং পৃথিবীর অন্যতম সুন্দর ও দর্শনীয় একটি শহর। এসফাহনের দর্শনীয় স্থানের মধ্যে রয়েছে- শাহ মসজিদ, সিয়োহী পুল, নাকশে জাহান স্কয়ার, খাজু ব্রীজ, শাহরেস্তান পোল, জুবী পোল, মারনান ব্রীজ প্রভৃতি। বিখ্যাত চার্চসমূহের মধ্যে রয়েছে- বেদখেম চার্চ, সেন্ট জর্জ চার্চ, সেন্ট মেরী চার্চ, ভানক ক্যাথেভরাল প্রভৃতি।

ইয়াজদ

ইয়াজদ

ইয়াজদকে বলা হয় ইরানের বইয়ের রাজধানী। ফলে শিক্ষা-সংস্কৃতি শিল্পমনস্ক ও ভ্রমণ পিপাসুদের কাছে ইরানের শহরটি হয়ে উঠেছে অন্যতম দর্শনীয় স্থান। ইরানের সবচেয়ে বড় দুই মরুভূমির মাঝে অবস্থিত এই ইয়াজদ শহরে গেলেই দেখতে পাবেন প্রাচীনকালের বিভিন্ন ঘরবাড়ি ও শিল্পকলার নানা নিদর্শন। শিক্ষা-সংস্কৃতি, বিজ্ঞান ও শিল্পকলা চর্চার কারণে এই শহরটি আধুনিক শিল্পকলার রাজধানী হিসেবে সুপরিচিত।

ডেইলি বাংলাদেশ/এনকে