ইরাকে ইরানিদের প্রবেশ নিষেধাজ্ঞা অব্যাহত

করোনাভাইরাস

ইরাকে ইরানিদের প্রবেশ নিষেধাজ্ঞা অব্যাহত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:০১ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

ইরাকে ইরানি নাগরিকদের প্রবেশ নিষেধাজ্ঞা অব্যাহত রেখেছে দেশটি। শনিবার নিষেধাজ্ঞার সময় বাড়িয়ে দেয়া হয়েছে। তবে ইরানে অবস্থানরত ইরাকি নাগরিকরা দেশে ফিরতে পারবে বলে জানানো হয়েছে।

শনিবার ইরাকের তত্ত্বাবধায়ক সরকার আদেল আব্দুল মাহদির কার্যালয় থেকে জারি করা এক বিবৃতিতে এ ঘোষণা দেয়া হয়। এরইমধ্যে ইরানে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাই ঝুঁকি এড়াতেই মূলত এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার ইরানি নাগরিকদের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করে ইরান। তবে দ্বিতীয় দফায় বাড়ানো এই সময়কাল কতদিন দীর্ঘায়িত হতে পারে সে বিষয়ে কিছুই উল্লেখ করা হয়নি বিবৃতিতে।

কভিড-১৯ নামে পরিচিত এ ভাইরাসে এখন পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী দুই হাজার ৪৫৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে চীনের মূল ভূখণ্ডে মৃত্যু হয়েছে দুই হাজার ৪৪২ জনের। এছাড়া বিশ্বব্যাপী এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ৭৭ হাজারের বেশি মানুষ। চীনে আক্রান্ত হয়েছে প্রায় ৭৬ হাজার ৯৩৬ জন।

বিশ্বের প্রায় ৩০টি দেশের মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্তের হয়েছে। মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর মধ্যে ইরান ছাড়াও সংযুক্ত আরব আমিরাত, ইসরায়েল, লেবানন ও মিশরে এ ভাইরাসে সংক্রমণের খবর পাওয়া গেছে। তবে এখন পর্যন্ত ইরাকে এ ভাইরাসে আক্রান্তের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

শনিবার ইরানের সঙ্গে ইরাকের সীমান্ত তৃতীয় দিনের মতো বন্ধ ছিলো। শুধুমাত্র ইরান ফেরত ইরাকি নাগরিকরাই স্ক্রিনিংয়ের মাধ্যমে প্রবেশের অনুমতি পেয়েছে। শনিবার বাগদাদ বিমানবন্দর কর্মীরা জানিয়েছেন, ইরানের শহরগুলো থেকে বিমান আসা ও ইরাক থেকে সেখানে বিমান যাওয়া দুইটাই স্থগিত করা হয়েছে।  

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরাকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে ইরাকের রেড ক্রিসেন্টের আলি আল মোসাওয়ি বলেন, ইরাকে আগত লোকদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য দ্বায়বদ্ধ চিকিৎসা কর্মীদের উন্নয়ন করা দরকার। ইরাকে আসা সব দর্শনার্থীদের যাচাই করার বিশয়ে তাদের আরো সচেতন হতে হবে বলেও মনে করেন তিনি। মোসাওয়ি আরো বলেন, চিকিৎসার তুলনায় প্রতিরোধই ভালো তাই আমাদের আরো সচেতনতা বাড়াতে হবে। 

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডাব্লিউএইচও) প্রতিনিধি আদনান নাওয়ার বলেন, করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করছে ইরাক। ডাব্লিউএইচও ইরাকের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে ভাইরাস শনাক্তকরণ কিট সরবরাহ করার পাশাপাশি প্রযুক্তিগত ও যৌক্তিক পরামর্শ দিচ্ছে বলেও জানান নাওয়ার।

তিনি আরো জানান, ইরাকের হাসপাতালগুলোতে করোনাভাইরাসের জন্য পৃথক কক্ষ তৈরি করে রাখা হয়েছে।

সূত্র- আল জাজিরা

ডেইলি বাংলাদেশ/এসএমএফ