Alexa আসছে শুল্কহীন ভারতীয় পণ্য, তল্লাশির নামে হয়রানি

আসছে শুল্কহীন ভারতীয় পণ্য, তল্লাশির নামে হয়রানি

জি.এম আশরাফ, বেনাপোল ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১১:১৪ ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আপডেট: ১১:২২ ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

বেনাপোল চেকপোস্টে শুল্ক ফাঁকি দিয়ে আনা ভারতীয় পণ্যে দেশের বাজার সয়লাব। প্রতিদিন এ পথে ভারত থেকে অসংখ্য পণ্য আনছে পাসপোর্ট যাত্রীরা। এতে রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার,  তল্লাশির নামে হয়রানির শিকার হচ্ছে মানুষ।

ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, চেকপোস্ট সংশ্লিষ্ট কয়েকজন কর্মকর্তা-কর্মচারীর যোগসাজশে দেশে আসছে এসব পণ্য। আর লোক দেখানোর জন্য তল্লাশির নামে হয়রানির শিকার হচ্ছে নির্দোষরা। বিশেষ করে যারা চিকিৎসা ও কেনাকাটা করে ভারত থেকে ফিরছে তাদের বেশি হয়রানি করা হচ্ছে।

ভুক্তভোগীরা জানায়, বেনাপোল চেকপোস্টে প্রতিদিন হাতে গোনা কিছু লোক ভারত থেকে জুতা, কসমেটিক্স, দুধ, হরলিক্স, শাড়ি, থ্রি-পিসসহ বিভিন্ন পণ্য বেনাপোল, নাভারন, ঝিকরগাছায় আসছে। পাসপোর্ট যাত্রীদের অনেকেই বিজিনেস ভিসা নিয়ে রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে ভারতীয় পণ্য আমদানি করছে। এসব যাত্রী নির্বিঘ্নে ইমিগ্রেশন ও বিজিবি চেকপোস্ট পার হলেও সাধারণ যাত্রীরা হয়রানির শিকার হচ্ছে।

ভারতীয় পাসপোর্ট যাত্রী কৃষ্ণ বলেন, আমি ১০ তারিখে ভারত থেকে এসেছি। প্যাসেঞ্জার টার্মিনালের সামনে একজন লোক আমার কাছে দুই হাজার টাকা চান। আমি টাকা দিতে না চাইলে তিনি আমার পণ্য ক্যাম্পে নিয়ে সিজ করেন।

বেনাপোল আন্তর্জাতিক প্যাসেঞ্জার টার্মিনালের সামনে দেখা গেছে, ভারত থেকে আসা যাত্রীরা বড় বড় লাগেজ নিয়ে চেকপোস্ট দিয়ে বের হলেও তাদের চেক করা হয়নি। কিন্তু যারা ভ্রমণ ও চিকিৎসার জন্য ভারতে গিয়েছিলেন তাদের ব্যাগ চেক করা হচ্ছে। কাউকে আবার ক্যাম্পেও পাঠানো হচ্ছে। 

যশোরের নওয়াপাড়ার তানিয়া খাতুন রিতু বলেন, আমি ভারতে ঘুরতে গিয়েছিলাম। ফেরার সময় তেল, শ্যাম্পু ও জুতা কিনেছি। ২০ তারিখ কাস্টমস থেকে বের হওয়ার পর প্যাসেঞ্জার টার্মিনালের সামনে গেলে আমাকে আটকে ক্যাম্পে নিয়ে ব্যাগ তল্লাশি করা হয়। অথচ আমার সঙ্গের অনেকেই বড় বড় লাগেজ নিয়ে বের হলেও তাদের তল্লাশি করেনি কেউ।

বেনাপোল কাস্টমস সুপার মো. কামরুজ্জামান বলেন, কিছু যাত্রী ভারত থেকে বেশি পণ্য নিয়ে আসেন। আমরা তাদের তল্লাশি করলেও যারা কম পণ্য আনেন তাদের ছেড়ে দেই।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর